সোমবার, ২০ সেপ্টেম্বর ২০২১, ১১:৩৯ অপরাহ্ন
শিরোনাম :
Logo বরিশাল বিভাগীয় কমিশনার ও জেলা প্রশাসকের লেবুখালীতে নির্মিত পায়রা সেতু পরিদর্শণ। Logo বাংলাদেশের কোন জলাশয় অব্যবহৃত থাকবেনা, কলাপাড়ায় মৎস্যমন্ত্রী। Logo কলাপাড়ায় বড় মসজিদের টাকা আত্মসাতের অভিযোগে : আগামী সপ্তাহে তদন্ত প্রতিবেদন। Logo বরগুনায় আত্মপ্রকাশ হলো আন্তর্জাতিক মানবাধিকার সাংবাদিক সংস্থার বরগুনা জেলা কমিটি। Logo মাদক বিক্রির অভিযোগ প্রতিবাদ করায় যুবকে মারধোর। Logo সাংবাদিক মঞ্জুরুল ইসলাম আর আমাদের মাঝে বেঁচে নেই। Logo ঝালকাঠিতে সত্তরার্ধ স্বামীহারা বৃদ্ধাকে ইউএনও’র খাদ্য, বস্ত্র সহায়তা। Logo বরিশালের হিজলায় জন্ম নিবন্ধনে নির্ধারিত ফি থেকে কয়েকগুণ বেশি টাকা নেয়ার অভিযোগ । Logo বাকেরগঞ্জে রাজনৈতিক দলের নেতাদের সাথে অপরাজিতাদের মতবিনিময় সভা। Logo তালতলীতে সাংবাদিকের উপরে হামলা,থানায় মামলা।

অভিযানে উদ্ধার জাল বিক্রির টাকা ভাগাভাগি নিয়ে মাঝ নদীতে নৌ পুলিশের হাতাহাতি

দৈনিক আলোকিত প্রভাত / ৩৮ বার পঠিত
আপডেট সময় : শনিবার, ১৪ আগস্ট, ২০২১, ৩:২৮ অপরাহ্ণ

নিজস্ব প্রতিবেদক :: অভিযানে উদ্ধার অবৈধ জাল বিক্রির টাকা ভাগাভাগি নিয়ে হাতাহাতিতে জড়িয়েছে বরিশাল সদর নৌ থানা পুলিশের দুই সদস্য। একজন সহকারি উপ-পরিদর্শক পদমর্যাদার কর্মকর্তার উপস্থিতিতে হায়দার ও তরিকুল নামের দুই কনস্টেবল মাঝ নদীতে ট্রলারে এই সংঘাতে জড়িয়ে পড়েন। পরিস্থিতি বেশি ভাল না অনুমানে নিয়ে ওই দিন কোনো অভিযানে না গিয়েই ট্রলার ঘুরিয়ে বরিশালে নিয়ে আসা হয়। বিলম্বপ্রায় ঘটনাটি এতদিন লুকোচাপা থাকলেও থানা পুলিশের অপরাপর কর্মকর্তাদের কানাঘুষায় প্রকাশ পেতে শুরু করেছে। গত ১০ আগস্টের এই ঘটনা নিয়ে পুলিশ সদস্যরা মুখ না খুললেও বিষয়টি নিয়ে নৌ পুলিশের ভেতরে ভেতরে তোলপাড় যাচ্ছে।

জানা যায়, কামাল নামের এক মাঝির নৌকায় চরে সহকারি উপ-পরিদর্শক (এএসআই) শাহ আলমের নেতৃত্বে হায়দার-তরিকুলসহ ৬ পুলিশ সদস্য নৌবন্দর থেকে অভিযানের লক্ষে বের হয়। কিছুটা পথ অতিক্রম করে ট্রলারটি সদর উপজেলার পামেরহাট নামক এলাকায় পৌছালে ট্রলারের অভ্যন্তরে দুই পুলিশ কনস্টেবল তর্কবিতর্কে জড়িয়ে পড়ে। এসময় এএসআই শাহ আলম তাদের নিবৃত করার চেষ্টা চালিয়ে ব্যর্থ হলে একপর্যায়ে উভয় পুলিশ সদস্য তাদের অস্ত্র নিয়ে একে অপরের দিকে তেড়ে আসে এবং শেষে অস্ত্র রেখে হাতাহাতি-মারামারিতে জড়িয়ে পড়ে।

সেখানে উপস্থিত অপর এক পুলিশ সদস্য জানান, পদস্থ কর্মকর্তার নির্দেশনা মেনে কনস্টেবল তরিকুল অনুরোধে চুপসে গেলেও বেপরোয়া হায়দারকে থামানো যাচ্ছিল না। বরং তিনি এএসআই শাহ আলমের ওপরের চড়াও হন। এসময় ট্রলারের মাঝি কালাম তাকে (হায়দার) নিবৃত করতে গেলে তাকে ধাক্কা মেরে ফেলে দেন। লক্ষণ শুভ নয়, এমনটি অনুমানে সেইদিনের অভিযান ওই সময়ই শেষ করে থানায় ফিরে আসে পুলিশ সদস্যরা।

থানা পুলিশের একটি সূত্র জানায়, শুধু নদীতেই নয়, থানায় ফিরে এসে দুই পুলিশ সদস্য ফের বাকবিতন্ডায় জড়িয়ে পড়লে সহকর্মীরা তাদের শান্ত করে।

তবে এই মারামারির কথা অভিযানিক টিমের ইনচার্জ শাহ আলম এড়িয়ে গেলেও তার সাথে দীর্ঘক্ষণের আলাপচারিতায় কিছুটা আভাস পাওয়া গেছে। তাছাড়া নৌপুলিশের কয়েকজন সদস্য এ প্রতিবেদকের কাছে স্বীকার করেছেন। এমনকি বিষয়টি কালিগঞ্জ নৌপুলিশের কর্মকর্তারাও বিভিন্ন মাধ্যম অবগত হয়েছেন। কিন্তু তারা কেউই না প্রকাশ না করার শর্ত দিয়েছেন।

তবে পরিশেষে এএসআই শাহ আলম দাবি করেছেন, ওই দিন তার ডিউটি থাকলে অসুস্থতার কারণে তিনি না যেতে পারায় দায়িত্ব পালন করে সমমর্যদার কর্মকর্তা আশরাফ।

নৌ পুলিশের একটি সূত্র জানায়, ট্রলারসহ মাঝি নিয়ে অভিযানে গেলে যথার্থ মূল্য দিতে না পারায় অভিযানে উদ্ধার জাল বা মাছের কিছু অংশ দিয়ে দেওয়া হয়। কখনও কখনও বেশি পরিমাণ জাল ও মাছ মাঝিদের দিয়ে তাদের কাছ থেকে পুলিশ সদস্য মোটা অংকের টাকা আদায় করে থাকেন।

সূত্রটি জানায়, এর পূর্বে আরও দুটি অভিযানে কনস্টেবল হায়দার ও তরিকুল অংশগ্রহণ করে এবং তাদের সেই অভিযানেও বিপুল পরিমাণ জাল উদ্ধার হয়। সেখান থেকে কিছু জাল পুড়িয়ে ধংস করা হলেও বাদবাকি মাঝিকে দিয়ে দেওয়া হয়।

অভিযোগে শোনা যাচ্ছে, সেই জাল বিক্রির ভাগ কনস্টেবল হায়দার অনেকের চেয়ে কম পেয়েছেন, এনিয়ে কথা কাটাকাটির জেরে তরিকুলের সাথে ওই দিন সংঘর্ষে জড়িয়ে পড়েন।

এই বিষয়টি ট্রলারের মাঝি কালাম বরিশালটাইসের এ প্রতিবেদকের কাছে স্বীকার করলেও বিস্তার কোনো তথ্য দিতে রাজি হননি।

তবে এই বিষয়ে হায়দার বা তরিকুলের বক্তব্য নেওয়া সম্ভব না হলেও থানা পুলিশের ওসি হাসানাতুজ্জামান বলছেন, তিনি ছুটিতে আছেন, বিস্তারিত সম্পর্কে কিছুই জানেন না। কিন্তু ঘটনাটি যে ভাবে বলা হচ্ছে, তাতে দুই পুলিশ সদস্য মারাত্মক অপরাধ করেছেন। কর্মস্থলে ফিরে বিষয়টি তদন্ত করে দেখবেন।

পুলিশ সুপার কপিল উদ্দিন বলেছেন, তিনিও বিষয়টি সম্পর্কে মোটেও অবগত নন। তাছাড়া থানা পুলিশের পক্ষ থেকেও তাকে কিছু অবহিত করা হয়নি। তারপরেও বিষয়টি তদন্ত করে জড়িতদের বিরুদ্ধে ব্যবস্থা গ্রহণ করা হবে।’


আপনার মতামত লিখুন :

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *

এ জাতীয় আরও খবর

ফেসবুকে আমরা

Theme Customized By Theme Park BD