1. admin@dailyalokitoprovat.com : admin :
রবিবার, ২৯ মে ২০২২, ০৫:৫৯ পূর্বাহ্ন
সংবাদ শিরোনাম :
জাতীয় সাংবাদিক সংস্থা রাজশাহী বিভাগ’র নবনির্বাচিত কমিটির সাধারণ সভা অনুষ্ঠিত। রাজশাহীর বাঘায় আলোচিত পাঁচ টাকার হোটেল মালিক আর নেই। নলছিটিতে মাদ্রাসা ছাত্রী অপহরণের এক মাসেও উদ্ধার হয়নি, উল্টো দু’টি মামলা। মান্দার এক রুখী উচ্চ বিদ্যালয়ে নবীন বরণ অনুষ্ঠান অনুষ্ঠিত। বরগুনায় গণহত্যা দিবস ২৯ ও ৩০শে মে। নেত্রকোনায় জঙ্গি সংগঠনের নারী সদস্য আটক। কলাপাড়ায় অরজগতা রুখতে শক্ত অবস্থানে কলেজ ছাত্রলীগ। সমুদ্রের তীরে নিখোঁজ পর্যটক ফিরোজ কে খুঁজছেন শাশুড়ি, ২৪ঘন্টা মেলেনি সন্ধান। আটপাড়ায় বাংলাদেশ-ভারত সম্প্রীতি পরিষদের সম্মেলন অনুষ্ঠিত। কেশবপুরের মঙ্গলকোটে রংধনু আর্ট একাডেমির শুভ উদ্বোধন।

উন্নয়নের ছোঁয়ায় অনেকটাই পাল্টে গেছে ভীমরুলী গ্রাম, তবুও হাসি নেই চাষীদের মুখে।

দৈনিক আলোকিত প্রভাত
  • আপডেট সময় : বৃহস্পতিবার, ১২ আগস্ট, ২০২১
  • ২৩০ বার পঠিত

সৈকত বাড়ৈ, নিজস্ব প্রতিনিধি ঃ-
এশিয়া মহাদেশের সব চেয়ে বড় ভাসমান পেয়ারা বাজার খ্যাত ঝালকাঠির ভীমরুলি। এই বাজারটি দিন দিন দেশের মানুষের কাছে ভাসমান বাজার হিসেবে জনপ্রিয় হওয়ায় বাড়ছে দর্শনার্থীদের সংখ্যা। উন্নয়ন হয়েছে ভীমরুলি গ্রামের অনেক রাস্তা ও যোগাযোগ ব্যবস্থার। এক সময়ের অজোপাড়া গাঁয়ের মাটির রাস্তা এখন অনেক জায়গায় প্রসস্থ সড়ক পথ। শুধুমাত্র নৌ-পথ কেন্দ্রীক সেই ভীমরুলিতে এখন চলাচল করে মহাসড়কের ছোট পিকআপসহ নানা যানবাহন।তবে কিছু জরুরি রাস্তায় এখনো কোন উন্নয়নের ছোঁয়া লাগেনি। যেমন ভীমরুলি বাজার থেকে কুড়িয়ানা বাজারে যাওয়ার রাস্তার অনেকটাই এখনো খানা-খন্দে ভরা, রয়েছে কিছু ভাঙ্গা কালভার্ট। যে রাস্তাটি দিয়ে ভীমরুলির হাজারো মানুষ প্রতিদিন যাতায়াত করে। এমনকি শতাধিক স্কুল-কলেজ পড়ূয়া ছাত্র-ছাত্রীদের যাতায়াতের পথ এটা। তাই রাস্তাটি দিয়ে যাতায়াতের সময় চরম দুর্ভোগ পোহাতে হচ্ছে সাধারন জনগন সহ স্কুল-কলেজ পড়ূয়া ছাত্র ছাত্রীদের।
অন্যদিকে পর্যটকদের চাহিদার কথা বিবেচনা করে ব্যক্তিগত উদ্যোগে পেয়ারা বাগানের মধ্যেই গড়ে উঠেছে ছোট ছোট অনেক মিনিপার্ক। তবুও হাসি নেই চাষীদের মুখে। করোনার কারনে পেয়ারার সঠিক দাম না পাওয়ায় ও প্রকৃত চাষীরা কোন স্বল্প সুদে ব্যাংক ঋণ না পাওয়ায় স্থানীয়ভাবে সমবায় সমিতি বা এনজিও থেকে উচ্চসুদের ঋণ মেটাতেই মুছে যায় মুখের হাসিটুকু। তাই যদি অত্র এলাকার অনুন্নত সড়ক গুলোকে চলাচলের উপযোগী করা যায় ও প্রকৃত চাষীদের মধ্যে সরকারিভাবে কোন সল্প সুদে ঋনের ব্যবস্থা করা হয় এবং চাষীরা যদি পেয়ারার সঠিক মূল্য পায়, তাহলে চাষীদের মুখে হাসি ফুটতে পারে বলে জানান ভীমরুলির প্রকৃত পেয়ারা চাষী সহ সর্বস্তরের জনগন।

Leave a Reply

Your email address will not be published.

এ জাতীয় আরও খবর

ফেসবুকে আমরা