1. admin@dailyalokitoprovat.com : admin :
বৃহস্পতিবার, ৩০ জুন ২০২২, ১০:০৯ অপরাহ্ন
সংবাদ শিরোনাম :
একজন তরুণ হাফেজের বেঁচে থাকার জন্য আর্থিক সাহায্যের আকুল আবেদন। ঝালকাঠিতে গ্রামীন ব্যাংকের ব্রাঞ্চ ম্যানেজার’র দূর্নীতির মামলায় ১০বছরের কারাদন্ড। তালতলী ইউপি নির্বাচনে স্বতন্ত্র প্রার্থীর বিজয়। কাহালুতে ক্ষুদ্র ও প্রান্তিক কৃষকদের মাঝে, বিনামূল্য সার বীজ বিতারন। জেলা প্রশাসনের উদ্যোগে সাহিত্য সম্মেলন ও সাংস্কৃতিক অনুষ্ঠানে লেখক হিসেবে সম্মাননা ক্রেস্ট পেল সাংবাদিক বাচ্চু। কেশবপুরের বাঁশবাড়িয়া বাজার পরিচালনা কমিটির নির্বাচন সম্পন্ন। নেত্রকোনার সুলতানকে দেখতে মানুষের ভিড়। জন্মনিবন্ধন সনদে অতিরিক্ত টাকা আদায়,সুবিদপুর উদ্যোক্তার সাথে স্থানীয় জনতার হাতাহাতি। কাহালুতে প্রাণী সম্পদ অফিসে খামারীদের মধ্যে গরু,ছাগল বিতরণ। প্রবাসী বাংলাদেশীদের সাথে নিয়ে ব্রাসিলিয়ায় পদ্মা সেতুর শুভ উদ্বোধন উদযাপন।

কঠোর লকডাউনেও ভোলা-লক্ষ্মীপুর রুটে চলছে অবৈধভাবে যাত্রী পারাপার

দৈনিক আলোকিত প্রভাত
  • আপডেট সময় : মঙ্গলবার, ২৭ জুলাই, ২০২১
  • ১৪০ বার পঠিত

ভোলা প্রতিনিধি :: কঠোর লকডাউনেও ভোলা-লক্ষ্মীপুর রুটে মাছ ধরার ছোট ছোট ট্রলার ও স্পিডবোটে যাত্রী পারাপার করছে একটি প্রভাবশালী মহল। একদিকে যেমন সরকারি বিধিনিষেধ অমান্য হচ্ছে অন্যদিকে উত্তাল মেঘনায় যেকোনো সময় বড় দুর্ঘটনার আশঙ্কাও রয়েছে।

করোনা সংক্রমণ বেড়ে যাওয়ায় গত ২৩ জুলাই থেকে সারাদেশে ১৪ দিনের কঠোর লকডাউন ঘোষণা করে সরকার। এসময় বিনা প্রয়োজনে ঘরের বাইরে বের হওয়াসহ সকল ধরনের গণপরিবহন ও নৌযান বন্ধ ঘোষণা করা হয়। ভোলাতেও চলে এই কঠোর বিধিনিষেধ। কিন্তু ভোলা থেকে মূল ভূখণ্ডে যেতে একমাত্র মাধ্যম হলো নৌযান। যার ফলে ভোলার ইলিশা ফেরিঘাটে প্রতিদিন কর্মস্থলে যেতে হাজার হাজার লোক ভিড় করছেন। কিন্তু প্রশাসন তাদেরকে ফেরিতে উঠতে না দিয়ে বাড়ি পাঠিয়ে দিচ্ছেন। এ সুযোগে ঘাটে থাকা একটি দালাল চক্র ঘাটে আসা লোকদের নদী পারাপার করতে ইলিশা ফেরিঘাটের পার্শ্ববর্তী শাহাজল বেপারীর ঘাট ও বাজাপুরের জোরখাল এলাকায় নিয়ে যায়। সেখান থেকে স্পিডবোট ও ছোট ছোট মাছ ধরার ট্রলার করে তাদেরকে লক্ষ্মীপুর পৌঁছে দেয়। এসময় ভাড়াও আদায় হচ্ছে কয়েকগুণ বেশি।

এদিকে ১৫ মার্চ থেকে ১৫ অক্টোবর পর্যন্ত ভোলা-লক্ষ্মীপুর রুটকে ডেঞ্জার জোন হিসেবে ঘোষণা করেছে সরকার। এই আইনকে উপেক্ষা করেই এ রুটে যাত্রী পারাপার করা হচ্ছে। এতে নৌ-দুর্ঘটনার ঝুঁকি বাড়ছে।

ভোলার ইলিশা পুলিশ তদন্ত কেন্দ্রের ইনচার্জ পরিদর্শক মো. আনিসুর রহমান বলেন, আমরা সোমবার রাতে যাত্রী পারাপারের সময় মাছ ধরার ট্রলারের দুই মাঝিকে আটক করে ভ্রাম্যমাণ আদালতে সোপর্দ করেছি।

ভোলা সদর উপজেলা নির্বাহী অফিসার মো. মিজানুর রহমান বলেন, বিষয়টি আমরা শুনেছি। এখন থেকে একজন নির্বাহী ম্যাজিস্ট্রেট এই দুইটি ঘাটে অবস্থান করবেন। কেউ অবৈধ উপায়ে যাত্রী পারাপার করলে তাদের বিরুদ্ধে আইনানুগ ব্যবস্থা নেওয়া হবে।

Leave a Reply

Your email address will not be published.

এ জাতীয় আরও খবর

ফেসবুকে আমরা