রবিবার, ১৭ অক্টোবর ২০২১, ০৫:২০ পূর্বাহ্ন
শিরোনাম :
Logo ৬ নং ভানোর ইউনিয়ন পরিষদ নির্বাচনে নৌকার কান্ডারী হতে চান রফিকুল ইসলাম। Logo ঝালকাঠিতে ১০ টাকার চাল বিক্রিতে নানা অনিমের অভিযোগ। Logo ঝালকাঠির বার্জ ডিপো জনস্বার্থে স্থানান্তরের দাবী এলাকাবাসীর। Logo রাঙামাটির গুলশাখালী ইউনিয়ন বাসীর সেবায় নিজেকে উৎসর্গ করতে চায় আব্দুল মালেক। Logo রায়পাশা- কড়াপুর ইউনিয়ন বাসীর সেবায় নিজেকে উৎসর্গ করতে চায় আহম্মদ শাহরিয়ার বাবু। Logo শারদীয় দূর্গা পূজার শুভেচ্ছা জানিয়েছেন বিশ্বাস মতিউর রহমান বাদশা। Logo বাকেরগঞ্জে গরু চোর সিন্ডিকেটের মূল হোতা সোহাগ বাকেরগঞ্জ থানা পুলিশের হাতে গ্রেফতার। Logo বিশ্বসেরা গবেষকদের তালিকায় ঠাকুরগাঁওয়ের আনোয়ার খসরু Logo কাহালুতে বাজার ফার্নিচার মালিক সমিতির কমিটি গঠন। Logo ক্যাপশন

কলাপাড়ায় জামাইকে জমি লিখে না দেওয়ায় বৃদ্ধ শাশুড়িকে বেধরক মারধর

দৈনিক আলোকিত প্রভাত / ১৫ বার পঠিত
আপডেট সময় : রবিবার, ২৯ আগস্ট, ২০২১, ১২:২৭ পূর্বাহ্ণ

পটুয়াখালী প্রতিনিধি ঃ
কলাপাড়ায় জামাই ইসমাইল খাঁ’কে শ্বশুরবাড়ি’র জমি লিখে না দেওয়ায় বৃদ্ধ শাশুড়ি সুফিয়া বেগম (৮০) কে বেধরক মারধর করে জখম করার অভিযোগ পাওয়া গেছে।আহত সুফিয়া বেগম পৌর শহরের বাদুরতলী এলাকার একুশে সড়কের মৃত মোসলেম খানের স্ত্রী।

শুক্রবার (২৭ আগষ্ট) দুপুর ১ টায় পৌর শহরের বাদুরতলী এলাকার একুশে সড়কে এ ঘটনাটি ঘটে।এ ঘটনায় আহত সুফিয়া বেগম ছেলে শনিবার ২৮ আগষ্ট কলাপাড়া থানায় একটি লিখিত অভিযোগ দিয়েছে।

অভিযোগ সূত্রে জানা যায়, ইসমাইল খাঁ শ্বশুরবাড়িতে জোর করে ঘর তুলে বসবাস করে আসছে। বিভিন্ন সময় ইসমাইলকে ঘর নিয়ে যাওয়ার জন্য বলা হলে সে যাচ্ছিল না। ওই ঘরের জমি নিজের নামে লিখে দিতে শাশুড়িকে বলে। এতে রাজি না হওয়ায় ঘটনা দিন ইসমাইল খাঁ ও তার ছেলে নাঈন এবং ফেরদৌস মিলে কিল, ঘুসি, চর, থাপ্পর দিয়ে বৃদ্ধ সুফিয়া বেগমকে জখম করে।

এ সময় সুফিয়া বেগমকে বাঁচাতে এসে তার ছেলে সোহরাব (৩৪) ও ছেলের বউ শাহিদা (২০) কেও বেধরক মারধর করে রক্তাক্ত জখম করে।

আহত সুফিয়া বেগমের ছেলে সোহরাব বলেন, ইসমাইল খাঁ আমার বড় বোনের জামাই। সে কলাপাড়া থানার কথিত সোর্স পরিচয় দিয়ে মাদক ব্যবসার সাথে জড়িয়ে পড়ে। কয়েক মাস আগে ইয়াবাসহ গ্রেপ্তার হয়ে জেলহাজতে ছিল, জেল থেকে বেরিয়ে আরো বেপরোয়া হয়ে ওঠে। তার জন্য আমাদের বাড়ি থেকে যেতে বলা হয়। কিন্তু বাড়ির জমি নিজের দাবি এবং নিজের নামে লিখে দিতে বলে। এতে রাজি না হওয়ায় আমি সহ আমার মা ও স্ত্রী কে কিল, ঘুসি, চর, থাপ্পর মারে। এতে তারা রক্তাক্ত জখম হন।

বর্তমানে সুফিয়া বেগম কলাপাড়া হাসপাতালে চিকিৎসাধীন রয়েন।এ ব্যাপারে কলাপাড়া থানার ওসি (তদন্ত) মো. আসাদুর রহমান জানান, তদন্ত করে আইনগত ব্যবস্থা নেওয়া হচ্ছে।


আপনার মতামত লিখুন :

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *

এ জাতীয় আরও খবর

ফেসবুকে আমরা

Theme Customized By Theme Park BD