মঙ্গলবার, ১৮ জানুয়ারী ২০২২, ০৪:৫৯ পূর্বাহ্ন

ঝালকাঠিতে অর্ধকোটি টাকা লোপাটের মামলায় অধ্যক্ষ বসারের বিরুদ্ধে গ্রেপ্তারী পরোয়ানা জারী।

দৈনিক আলোকিত প্রভাত / ১৩ বার পঠিত
আপডেট সময় : বৃহস্পতিবার, ১৩ জানুয়ারি, ২০২২, ৯:৫৪ অপরাহ্ণ

রিয়াজুল ইসলাম বাচ্চু, ঝালকাঠি।
ঝালকাঠির কাঠালিয়া শহীদ রাজা ডিগ্রী কলেজের সাবেক অধ্যক্ষ মোঃ আবুল বসারের বিরুদ্ধে গ্রেপ্তারী পরোয়ানা জারী করেছে সিনিয়র জুডিশিয়াল ম্যাজিষ্ট্রেট আদালত। নিয়োগ জালিয়াতী, দূর্নীতি ও অর্থ আত্মাতের মামলায় আদালতের দেয়া সোমনাদেশ অমান্য করায় আজ ১৩ জানুয়ারী বৃহষ্পতিবার দুপুরে আদালতের বিচারক আবুল কালাম আজাদ এ গ্রেপ্তারী পরোয়ানা জারী করেন। কলেজের বর্তমান অধ্যক্ষ সমির কুমার সাহা বাদী হয়ে দায়েরকৃত মামলার শুনানী শেষে আদালত এ গ্রেপ্তারী পরোয়ানা জারী করেন।

মামলা সূত্রে জানাগেছে, শহীদ রাজা ডিগ্রী কলেজের সাবেক অধ্যক্ষ মোঃ আবুল বাসার ২০১৫ সাল থেকে ২০২০ সাল পর্যন্ত ৫বছর দায়িত্ব পালনকালে শিক্ষক-কর্মচারীদের নিয়োগ, নবায়ন, ভ্রমন ভাতাসহ কলেজের বিভিন্ন তহবিল থেকে অনিয়ম, দূর্নীতি ও স্বেচ্ছাচারীতার মাধ্যমে ৫১লাখ ৪৭ হাজার টাকা আত্মসাতের অভিযোগ করেন।

বিগত ৩০ ডিসেম্বর ২০২০ তারিখে কলেজের বর্তমান অধ্যক্ষ সমির কুমার সাহা বাদী হয়ে ঝালকাঠি সিনিয়র জুডিশিয়াল ম্যাজিষ্ট্রেট আদালতে নালিশী মামলা (নং-১৭১/২০) দায়ের করেন। আদালত নালিশী মামলার শুনানী শেষে অভিযোগ তদন্ত করে গোয়েন্দ পুলিশ বিভাগ সিআইডিকে প্রতিবেদন প্রদানের নির্দেশ দেন। সিআইড পুলিশ প্রায় এক বছর তদন্ত শেষে ২০২১ সালের নভেম্বর মাসে আদালতে চার্জশীট প্রদান করেন।

আদালতে প্রদানকৃত তদন্ত প্রতিবেদনে সিআইডর তদন্ত কর্মকর্তা সাবেক অধ্যক্ষ মোঃ আবুল বসারের বিরুদ্ধে অনিয়ম, দূর্নীতি ও স্বেচ্ছাচারীতার মাধ্যমে অর্ধকোটি টাকা লোপটের ঘটনায় উত্থাপিত অভিযোগের প্রাথমিক সত্যতা পেয়েছেন বলে উল্লেখ করেন। বিচারক আসামী সাবেক অধ্যক্ষ বাসারকে আদালতে হাজির হওয়ার জন্য সোমন জারী করলেও দীর্গ দিন ধরে আদালতের আদেশ অমান্য করে অনুপস্থিত থাকেন।

এ অবস্থায় বৃহস্পতিবার ধার্য তারিখে আসামী অধ্যক্ষ বাসার অনুপস্থিত থাকলে পালাতক গন্য করে গ্রেপ্তারী পরোয়ানা জারী করেন।

এ বিষয়ে জানতে বৃহস্পতিবার সন্ধ্যায় অধ্যক্ষ বাসারের ব্যবহৃত মোবাইল ফোনে কল দিলে বন্ধ পাওয়া যায়। নাম প্রকাশে অনিচ্ছুক তার কলেজের জনৈক শিক্ষক জানান, অধ্যক্ষ বাসারের দূর্নীতি অনিয়ম, অর্থ আত্মসাতের অভিযোগর ঘটনা সত্য।


আপনার মতামত লিখুন :

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *

এ জাতীয় আরও খবর

ফেসবুকে আমরা

Theme Customized By Theme Park BD