রবিবার, ১৭ অক্টোবর ২০২১, ০৬:০১ পূর্বাহ্ন
শিরোনাম :
Logo ৬ নং ভানোর ইউনিয়ন পরিষদ নির্বাচনে নৌকার কান্ডারী হতে চান রফিকুল ইসলাম। Logo ঝালকাঠিতে ১০ টাকার চাল বিক্রিতে নানা অনিমের অভিযোগ। Logo ঝালকাঠির বার্জ ডিপো জনস্বার্থে স্থানান্তরের দাবী এলাকাবাসীর। Logo রাঙামাটির গুলশাখালী ইউনিয়ন বাসীর সেবায় নিজেকে উৎসর্গ করতে চায় আব্দুল মালেক। Logo রায়পাশা- কড়াপুর ইউনিয়ন বাসীর সেবায় নিজেকে উৎসর্গ করতে চায় আহম্মদ শাহরিয়ার বাবু। Logo শারদীয় দূর্গা পূজার শুভেচ্ছা জানিয়েছেন বিশ্বাস মতিউর রহমান বাদশা। Logo বাকেরগঞ্জে গরু চোর সিন্ডিকেটের মূল হোতা সোহাগ বাকেরগঞ্জ থানা পুলিশের হাতে গ্রেফতার। Logo বিশ্বসেরা গবেষকদের তালিকায় ঠাকুরগাঁওয়ের আনোয়ার খসরু Logo কাহালুতে বাজার ফার্নিচার মালিক সমিতির কমিটি গঠন। Logo ক্যাপশন

ডাঃ জিয়াউল হক মোল্লা সাবেক এম.পি অবহেলীত কাহালু-নন্দীগ্রামের উন্নয়নের ধারক বাহক ছিলেন।

দৈনিক আলোকিত প্রভাত / ৮৭ বার পঠিত
আপডেট সময় : বুধবার, ২২ সেপ্টেম্বর, ২০২১, ৭:৫৭ অপরাহ্ণ

হারুনুর রশিদ কাহালু (বগুড়া) প্রতিনিধি ঃ-
অবহেলিত কাহালু-নন্দীগ্রামের উন্নয়নের ধারক বাহক ছিলেন সাবেক এম.পি ডাঃ জিয়াউল হক মোল্লা। ১৯৭১ সালে বাংলাদেশের স্বাধীনতা যুদ্ধের পর থেকে যতগুলি সংসদ নির্বাচন হয়েছে, সেই নির্বাচিত জনপ্রতিনিধির মধ্যে কাহালু নন্দীগ্রামের সবচেয়ে জনপ্রিয় এম.পি ছিলেন তিনি। ১৯৮২ সালে সাবেক রাষ্টপতি এরশাদের জাতীয় পার্টির আমলে এই এলাকায় মন্ত্রী ছিরেন মরহুম মামদুদুর রহমান চৌধুরী। ১৯৮২ থেকে ১৯৯০ সাল পর্যন্ত কাহালু নন্দীগ্রামের অনেক উন্নয়ন হলেও ১৯৯০ এর পরে বিএনপি রাষ্ট্রীয় ক্ষমতায় আসে। ১৯৯৪ সালে ডাঃ জিয়াউল হক মোল্লা এম.পি হয়ে টানা প্রায় ১২ বৎসর এম.পি ছিলেন। তার এই ১২ বৎসের তিনি তার নির্বাচনী এলাকায় ২টি পৌরসভা গঠন করেন এবং পৌরসভার ভবন নির্মান সহ তিনি পৌর এলকার রাস্তা ঘাট সহ ব্যাপক উন্নয়ন তার আমলে সাধিত হয়। এই অবহেলিত জনপদকে তিনি উন্নয়নের শীর্ষ প্রান্তে নিয়ে যায়। তার সময় তিনি স্কুল কলেজ, মাদ্রাসা, রাস্তাঘাট, এতিমখানা, মসজিদ, মন্দির, গির্জার ব্যাপক উন্নয়ন করেন, যাহা চোখে পরার মত। তিনি কাহালু মালঞ্চা ইউনিয়নে তার বাবার নামে মরহুম আজিজুল হক ডিগ্রী মেমোরিয়াল কলেজ স্থাপন করেন, কাহালু সদরে মহিলা ডিগ্রী কলেজ স্থাপনে সার্বিক সহযোগীতা করেন। কাহালু সদর হাসপাতালকে তিনি ২৫ শয্যা থেকে ৫০শয্যা বিশিষ্ট উন্নত করেন। কাহালু পৌরসভার তিনি সবগুলি ড্রেনের ব্যবস্থা ও ইট সলিং সহ পৌরসভাকে আধুনিকায়ন করেন। তিনি কাহালুর বড় বড় রাস্তা তার আমলেই সম্পূর্ন করেন। কাহালু বীরকেদার ইউনিয়নের বারমাইল নামক স্থান থেকে বগুড়া সদর নামুজা চারমাথা পর্যন্ত নারহট্ট বিবিরপুকুর থেকে তিনদিঘী পাঁচপীর রাস্তা হতে শেখাহার পর্যন্ত দূর্গাপুর থেকে জামগ্রামের উপর দিয়ে নন্দীগ্রামের জামাদার পুকুরের রাস্তা কাহালু দরগাহাট থেকে উচল বাড়িয়া হয়ে নুনগোলা রাস্তা দূর্গাপুর থেকে পাতাঞ্জ রাস্তা মুরইল হয়ে আড়োলার উপর দিয়ে কালীতলা ভূগোইলের রাস্তা কাহালু থেকে মালঞ্চা হয়ে জামগ্রামের হাট পর্যন্ত রাস্তা দূর্গাপুর ইউনিয়নের প্রতাপপুর হয়ে চাঁনপুরার রাস্তা মালঞ্চা ইউনিয়নের ইন্দুখুর থেকে জামগ্রামের শান্তা বিজরুল হয়ে নন্দীগ্রামের সদর পর্যন্ত রাস্তা সহ অসংখ্য রাস্তা তার সময়েই হয়। কাহালু উপজেলা হতে তালোড়া নাগর নদীর উপর দিয়ে যত ব্রিজ নির্মিত হয়েছে তার অধিকাংশ তিনিই সম্পূর্ন করেন। কাহালু ডিগ্রী কলেজের ভবন নির্মান ও সীমানা প্রাচীর তার সময়ে করা। কাহালু সদর হতে দরগাহাট রাস্তায় পল্লীবিদ্যুতের পাওয়ার প্লান তিনিই স্থাপন করেন। দূর্গাপুর ইউনিয়নে দেওগ্রাম নামক স্থানে ইউনিয়ন স্বাস্থ্য কমপ্লেক্স ও কালাই ইউনিয়ের স্বাস্থ্য কমপ্লেক্স তার আমলে স্থাপন করা। যাহার দ্বারা অত্র এলাকার সাধারণ গরীব দুঃখি মানুষ চিকিৎসা সেবা আজও পাচ্ছে। সেই সময় কাবিখা, কাবিটা, টি, আর গ্রাম উন্নয়ন মূলক কাজ সহ যত উন্নয়ন মূলক বরাদ্ধ এসেছে, তাহা তিনি সুষম বন্টন করেছেন। প্রতিটি মসজিদ, মাদ্রাসা, এতিমখানা, মন্দির, গির্জা সব ধর্মীয় প্রতিষ্ঠানে তার অনুদান তিনি নিজ হাতে বিতরন করেছেন। এই সাবেক এম.পি ডাঃ জিয়াউল মোল্লাকে মানুষ আজও স্বরণ করে। তিনি সাধারণ মানুষের হৃদয়ে স্থান করে নিয়েছেন। তার নাম কাহালু নন্দীগ্রাম এলাকায় স্বর্ণক্ষারে লেখা থাকবে। তিনি এম.পি হিসাবে বগুড়া-৩৯ (কাহালু-নন্দীগ্রাম-৪) নির্বাচনী এলাকায় এত উন্নয়ন করার কারনে মানুষ তাকে আজও ভুলতে পারে না। তিনি গরীব দুঃখী মানুষের পাশে সব সময় ছিলেন,এবং ভবিষ্যতে থাকবে বলে সাধারণ মানুষ তাকে মনে করে। সামনে দ্বাদশ জাতীয় সংসদ নির্বাচন তাকে এই এলাকায় মানুষ এম.পি হিসাবে দেখতে চায়। সাধারণ মানুষের প্রত্যাশা তাকে তার দল এইবার এখান থেকে নমিনেশন দিবে অবশ্যই। তাহলে সেই সময় কার অসমাপ্ত কাজ তিনি সমাপ্ত করেত পারবেন। তিনি তার নির্বাচনী এলকায় অবিস্বরণীয় একজন সৎ,ভদ্র,নম্র চরিত্র বান ব্যওিত্ব।


আপনার মতামত লিখুন :

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *

এ জাতীয় আরও খবর

ফেসবুকে আমরা

Theme Customized By Theme Park BD