বুধবার, ২৭ অক্টোবর ২০২১, ০৬:৩৬ অপরাহ্ন
শিরোনাম :
Logo সৈয়দকাঠীতে বিদ্রোহী চেয়ারম্যান প্রার্থী বীর মুক্তিযোদ্ধা রাজ্জাক মাস্টার আনারস প্রতীক পেয়েছেন Logo মনোনয়ন না পেলেই একে অপরকে রাজাকার বানাতে ব্যস্ত ঃ ওবায়দুল কাদের। Logo ঠাকুরগাঁওয়ের সেই তেলের ঘানি টানা দম্পতিকে গরু ও অর্থ উপহার দিলেন- জেলা প্রশাসক Logo বরিশাল লঞ্চঘাটে থ্রি হুইলার থেকে সুমনের চাঁদাবাজি বন্ধের প্রতিবাদে মানববন্ধন Logo শিকলে বাঁধা মৌসুমি এখন স্বাভাবিক জীবনে। Logo আসন্ন ইউপি নির্বাচনে বাকেরগঞ্জ নিয়ামতি ইউনিয়নে ১ নং ওয়ার্ডে জনমত জরিপে এগিয়ে রয়েছেন বাবুল আকন। Logo ঠাকুরগাঁওয়ে ঐতিহ্যবাহী টাংগন ব্যারেজের গেট উত্তলন। Logo কর্মহীন হয়ে পড়েছেন লেবুখালী ফেরিঘাট কেন্দ্রিক জীবিকা নির্বাহকারী শতাধিক ফেরিওয়ালা ও টং দোকানদার ব্যবসায়ীরা। Logo বরিশাল বানারীপাড়া থানায় পিতা ও পুত্রের বিরুদ্ধে হত্যা চেষ্টার অভিযোগ। Logo রুহিয়া ইউপি নির্বাচনে আবারও মনিরুল হক বাবুকে নৌকার কান্ডারী দেখতে চায় ইউনিয়নবাসী ।

দীর্ঘমেয়াদি ছুটির মেজাজে বরিশালে ফিরছেন মানুষ

দৈনিক আলোকিত প্রভাত / ৩৭ বার পঠিত
আপডেট সময় : রবিবার, ১৮ জুলাই, ২০২১, ১:২৬ অপরাহ্ণ

ডেস্ক প্রতিবেদক :: রাজধানী ঢাকা থেকে দীর্ঘমেয়াদি ছুটির মেজাজে ফিরছেন ঘরমুখো মানুষ। যেন দক্ষিণাঞ্চলে মানুষের ঢল নেমেছে। বরিশাল লঞ্চঘাট, নথুল্লাবাদ বাস টার্মিনাল ও বিমানবন্দরে উপচে পড়া ভিড় লক্ষ্য করা গেছে। প্রচ- ভিড়ের মধ্যেও ঘরে ফিরতে পেরে খুশি যাত্রীরা। তবে লঞ্চ ও বাসে কোনো স্বাস্থ্যবিধি মানা হয়নি।

জানা গেছে, সাতটি লঞ্চ বোঝাই করে হাজার হাজার মানুষ শনিবার সকালে বরিশালে এসেছেন। শহরে যানজট ও যানবাহন কম থাকায় অনেককে বিড়ম্বনায় পড়তে হয়। ঢাকার রামপুরা থেকে বরিশালে ঈদ করতে আসা বেসরকারি চাকরিজীবী জহিরুল ইসলাম জানান, করোনাভাইরাসের কারণে দেড় বছর বাড়ি আসতে পারিনি। বাবা-মায়ের সঙ্গে কুরবানির ঈদ করতে পরিবার নিয়ে বাড়ি এসেছি। কিন্তু শুক্রবার রাতে ঢাকার সদরঘাটে যানজটে পড়তে হয়েছে। লঞ্চে কেবিন নেওয়ায় দুর্ভোগ একটু কমেছে। কিন্তু কেবিন থেকে তারা বের হতে পারেননি।

বাথরুমে যেতেও বেগ পেতে হয়েছে। রাজধানী থেকে আসা মিজানুর রহমান জানান, পথে পথে অনেক দুর্ভোগ পোহাতে হয়েছে। আবার বরিশালে গাড়ি পেতেও দুর্ভোগে পড়তে হয়েছে। ২০০ টাকার ভাড়া ১ হাজার টাকা পর্যন্ত চাওয়া হয়। বাড়তি ভাড়ায় বাড়ি ফিরতে হচ্ছে। তিনি বলেন, লঞ্চযাত্রীদের মুখে মাস্ক ছিল না বললেই চলে। শুধু লঞ্চে প্রবেশের সময় মাস্ক পরতে বলা হয়েছিল। বাকি সময় অধিকাংশ যাত্রী মাস্ক পরেননি। যাত্রী আরিফ হোসেন জানান, করোনাকালে বিধিনিষেধ অনুযায়ী দুটি আসনের একটিতে যাত্রী বসার কথা। অন্যটি খালি থাকার কথা। কিন্তু লঞ্চে এর কোনো বালাই ছিল না। প্রায় প্রতিটি লঞ্চেরই একই অবস্থা। এরপরও গতবারের মতো বিপদে পড়তে হয়নি বলে তিনি খুশি।

বাংলাদেশ অভ্যন্তরীণ নৌ চলাচল (যাত্রী পরিবহণ) সংস্থার ভাইস চেয়ারম্যান ও সুন্দরবন লঞ্চের ব্যবস্থাপনা পরিচালক সাইদুর রহমান রিন্টু বলেন, স্বাস্থ্যবিধি মেনে যাত্রী পরিবহণ করা হচ্ছে। সামাজিক দূরত্বও বজায় রাখা হচ্ছে। শুক্রবার ঢাকা থেকে সাতটি লঞ্চ ছেড়ে এসেছে। শনিবার আটটি লঞ্চ যাত্রী পরিবহণ করেছে। এবং রোববার থেকে বিশেষ সার্ভিস শুরু হবে। সেখানে যাত্রী চাপ অনুসারে যতগুলো প্রয়োজন লঞ্চ সার্ভিস দেওয়া হবে।

বরিশাল বিআইডব্লিউটিএ বন্দর ও পরিবহণ বিভাগের যুগ্ম পরিচালক মোস্তাফিজুর রহমান বলেন, বরিশালে স্বাস্থ্যবিধি মেনে সাতটি লঞ্চ এসেছে। পাশাপাশি বন্দর এলাকায়ও প্রস্তুত রাখা হয়েছে। যাত্রীদের হাত ধোয়াসহ স্বাস্থ্যবিধি নিশ্চিত করা হয়েছে।

সড়কপথেও যাত্রী ভিড় ছিল চোখে পড়ার মতো। ২০ থেকে ৩০ মিনিট পরপর ঢাকা ও মাওয়া থেকে যাত্রী বোঝাই করে বাস নথুল্লাবাদ বাস টার্মিনালে আসছে। তবে এসব বাসে স্বাস্থ্যবিধি মানা হচ্ছে না। বাসযাত্রী হারুন অর রশিদ জানান, প্রতিটি সিটে যাত্রী ছিল। শুধু তাই নয়, দাঁড়িয়েও যাত্রী পরিবহণ করা হয়েছে। মাওয়া-বরিশাল রুটের বিআরটিসি বাস স্টাফদের বিরুদ্ধে অতিরিক্ত যাত্রী পরিবহণ ও ভাড়া নেওয়ার অভিযোগ পাওয়া গেছে। অতিরিক্ত ভাড়া নিয়ে বাসচালক ও সুপারভাইজারের সঙ্গে যাত্রীদের হট্টগোল হয়েছে। শনিবার সকালে কাঁঠালবাড়ি থেকে বরিশালের উদ্দেশে ছেড়ে আসা বিআরটিসি বাসে এ ঘটনা ঘটে।

বাসযাত্রী রিয়াজুল ইসলাম বলেন, কাঁঠালবাড়ি থেকে বরিশালে আসতে সরকার নির্ধারিত ৩২০ টাকার পরিবর্তে ৪০০ টাকা নিয়েছেন বাসটির সুপারভাইজার। এছাড়া লোকাল বাসের মতো বিভিন্ন স্টপেজে বাস দাঁড়িয়ে যাত্রী উঠা-নামা করা হয়। অতিরিক্ত যাত্রী নেওয়ার প্রতিবাদ করায় দুপুর ১২টার দিকে বরিশাল পৌঁছে বাসের স্টাফরা কয়েকজন যাত্রীর সঙ্গে ঝামেলা করার চেষ্টা করেন। এ ব্যাপারে বরিশাল বিআরটিসি বাস ডিপোর ব্যবস্থাপক মনিরুজ্জামান জানান, অভিযুক্তদের বিরুদ্ধে ব্যবস্থা নেওয়া হবে।

বরিশাল বিমানবন্দর সূত্রে জানা গেছে, যাত্রী চাপ বৃদ্ধি পাওয়ায় দুদিন ধরে নভোএয়ার প্রতিদিন চারটি ফ্লাইট, ইউএস-বাংলা চারটি ফ্লাইট ও বিমান বাংলাদেশ ৩ দিন ধরে একটি করে বিশেষ সার্ভিস পরিচালনা করছে। স্বাস্থ্যবিধি মেনে ফ্লাইট পরিচালনা করা হচ্ছে বলে জানা গেছে। নভোএয়ার বরিশালের অফিস ইনচার্জ আরিফিন ইসলাম বলেন, সরকারি নির্দেশনা মেনে দৈনিক চারটি ফ্লাইট পরিচালনা করা হচ্ছে। পাশাপাশি অন্য সংস্থাগুলোও বিশেষ সার্ভিস পরিচালনা করছে।


আপনার মতামত লিখুন :

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *

এ জাতীয় আরও খবর

ফেসবুকে আমরা

Theme Customized By Theme Park BD