রবিবার, ১৭ অক্টোবর ২০২১, ০৫:৫৩ অপরাহ্ন
শিরোনাম :
Logo বরিশালে সরকারি ঘর পাইয়ে দেয়ার কথা বলে টাকা নেওয়া, প্রতারক খলিল হাওলাদার’র ১ বছরের কারাদন্ড। Logo কলাপাড়ার মিঠাগঞ্জ ইউপিতে জেলে ও ভিজিডি’র চাল বিতরণ। Logo ঠাকুরগাঁওয়ে প্রথম ফাতেমা জাতের ধান চাষ করে সাফল্য অর্জন রেজাউল করিমের। Logo বাকেরগঞ্জ উপজেলায় লাইসেন্সবিহীন জমজমাট ফার্মেসী ব্যবসা /যেন দেখার কেউ নেই। Logo ৬ নং ভানোর ইউনিয়ন পরিষদ নির্বাচনে নৌকার কান্ডারী হতে চান রফিকুল ইসলাম। Logo ঝালকাঠিতে ১০ টাকার চাল বিক্রিতে নানা অনিমের অভিযোগ। Logo ঝালকাঠির বার্জ ডিপো জনস্বার্থে স্থানান্তরের দাবী এলাকাবাসীর। Logo রাঙামাটির গুলশাখালী ইউনিয়ন বাসীর সেবায় নিজেকে উৎসর্গ করতে চায় আব্দুল মালেক। Logo রায়পাশা- কড়াপুর ইউনিয়ন বাসীর সেবায় নিজেকে উৎসর্গ করতে চায় আহম্মদ শাহরিয়ার বাবু। Logo শারদীয় দূর্গা পূজার শুভেচ্ছা জানিয়েছেন বিশ্বাস মতিউর রহমান বাদশা।

বরগুনায় গণকন্ঠের ষ্টাফ রিপোর্টারকে খুন করার উদ্দেশ্যে ধারালো অস্র দিয়ে আঘাত।

দৈনিক আলোকিত প্রভাত / ৬০ বার পঠিত
আপডেট সময় : বৃহস্পতিবার, ২ সেপ্টেম্বর, ২০২১, ১২:২৪ পূর্বাহ্ণ

ইত্তিজা হাসান মনির,বরগুনা প্রতিনিধি ঃ-
মাসুম বিল্লাহ একজন সাংবাদিক, ঢাকা থেকে প্রকাশিত দৈনিক গণকন্ঠ পত্রিকার ষ্টাফ রিপোর্টার। অত্যন্ত দক্ষ ও পরিশ্রমী সাংবাদিক হিসাবে বরগুনা তার সুনাম রয়েছে। সাংবাদিক হচ্ছে কলুষিত সমাজের একটি সার্স লাইট। তার দু চোখের দৃষ্টি শক্তির ফলে সমাজ থেকে অনেক দূর্নীতিবাজ নিজেদের গুছিয়ে নিতে বাধ্য হচ্ছে। সাংবাদিকতা একটি চ্যালেঞ্জিং পেশা প্রতিনিয়ত নতুন নতুন সমস্যার মুখোমুখি হতে হয় এই পেশায় বিদ্যমানদের। দূর্নীতিবাজরা তাদের পূরাতন ধারনা পাল্টিয়ে নতুন কৌশলে কার্যক্রম পরিচালিত করে, আর সাংবাদিকরা তাদের অসংগতি বের করার টুলস ব্যবহার করে তা জনগনের সামনে প্রকাশ করে। আর তাতেই এই দূর্নীতিবাজ, সন্ত্রাসীদের কাছে সাংবাদিকরা রক্তচক্ষুতে পরিনত হয়।

বরগুনা সদর উপজেলার বদরখালী ইউনিয়নের গুলিশাখালী গ্রামের সাংবাদিক মাসুম বিল্লাহ, সে বরগুনা জেলা সাংবাদিক ইউনিয়নের একজন সদস্য। মাসুম বিল্লাহ বরগুনা সদর উপজেলার গৌরীচন্না বাজারের বড় মসজিদের ইমামের ছেলে। সকালে ফজরের নামাজের প্রস্তুতি নিতে শশুর বাড়ীর বসত ঘরের পাশ্বে পুকুরে অজু করতে গেলে আগ থেকে ওঁত পেতে থাকা দূর্বিত্তেরা ধারালো দা (বগি) দিয়ে খুন করার উদ্দেশ্যে কুপিয়ে জখম করেন।

মাসুম বিল্লাহ বলেন আমাকে এত জোড় দিয়ে আঘাত করেছে যদি সন্ত্রাসী পিছলিয়ে না পরত তাহলে আমি মরেই যেতাম। মাসুম বিল্লাহ এর ডাক চিৎকারে স্ত্রী সারমীন জাহান চলে আসলে রক্তাক্ত মাসুমকে বরগুনা সদর হাসপাতালে নিয়ে আসেন। জরুরী বিভাগে চিকিৎসা নিয়ে ভর্তি করা হয়। তিনি ঢাকা থেকে প্রকাশিত দৈনিক গণকণ্ঠ পত্রিকার স্টাফ রিপোর্টার বলে নিশ্চিত করেন বরগুনা সাংবাদিক ইউনিয়নের সাধারণ সম্পাদক।

মাসুম বিল্লাহ ও তার প্রতিবেশীদের কাছ হতে জানা গেছে স্ত্রীকে উত্যক্ত করার প্রতিবাদ করায় সাংবাদিক মাসুম বিল্লাহকে কুপিয়ে জখম করেছে শহিদুল ইসলাম সেলিম(৩৮) ও পিতা মাহবুবুল আলম পনু (৫৮)

আহত মাসুম বিল্লাহ’র স্ত্রী শারমিন জাহান জানান, জমি নিয়ে বিরোধ থাকার কারণে সমঝোতায় আসার জন্য আমাকে দীর্ঘদিন ধরে প্রেমের প্রস্তাব দিয়ে ব্যর্থ হয় এলাকার মাহবুবুল আলম পনুর ছেলে শহিদুল ইসলাম সেলিম। এরপর সাংবাদিক মাসুম বিল্লাহর সাথে বিয়ে হলে আমাকে বিয়ে করতে না পেরে ভোর রাতে মাসুম ফজরের নামাজ পড়ার জন্য শ্বশুরবাড়ির পুকুরে অযু করতে গেলে বখাটে সেলিম ও তার সাথে থাকা কয়েকজন অজ্ঞাতনামা লোক হামলা চালায়।

মাসুম বিল্লাহ এর চিৎকারে তারা ছুটে আসে এবং চিকিৎসার জন্য সদর হাসপাতালে ভর্তি করায়। এ বিষয়ে সদর থানায় মামলা করার প্রস্তুতি চলছে বলেও জানান তিনি।স্থানীয়রা জানান,মাসুম’বিল্লাহ এর স্ত্রী শারমিন জাহানকে সেলিমের কাছে বিয়ে না দেয়া ও জমি জমা নিয়ে বিরোধের জের ধরে দীর্ঘদিন যাবত উভয়ের মধ্যে মামলা চলছে।

এ বিষয় মানবাধিকার কর্মী এ্যাডভোকেট শফিকুল ইসলাম মজিদ বলেন এভাবে একজন সাংবাদিক কে ধারালো অস্র দিয়ে আঘাত করা, জাতীর বিবেকের কন্ঠরোধ করার শামীল। এ ধরনের অন্যায়কারী আইনের আওতায় এনে কঠোর বিচার করা উচিৎ।

এ বিষয়ে বরগুনা সদর থানার অফিসার ইনচার্জ (ওসি) কে এম তারিকুল ইসলাম বলেন বদরখালী ইউনিয়নে গুলিশাখালী গ্রামের সাংবাদিকের ওপর হামলার ঘটনা খবর পেয়েছি এখনো কোনো লিখিত অভিযোগ পাইনি, অভিযোগ পেলে প্রয়োজনীয় ব্যবস্থা নেয়া হবে।


আপনার মতামত লিখুন :

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *

এ জাতীয় আরও খবর

ফেসবুকে আমরা

Theme Customized By Theme Park BD