সোমবার, ২৫ অক্টোবর ২০২১, ০৩:০০ পূর্বাহ্ন
শিরোনাম :
Logo আসছে মজুমদার ফিল্মস’র এক সমুদ্র ভালোবাসা। Logo কুয়াকাটার মাদ্রাসার ছাত্রীকে উত্যক্ত করা, দুই যুবককে আটক করেছে পুলিশ। Logo মহিপুরের ওসি’র মহানুভবতায় পথ হারানো শিশু সুমাইয়া আক্তার (০৭) খুঁজে পেল তার পরিবার। Logo কলাপাড়ার নীলগঞ্জ ইউনিয়ন স্বেচ্ছাসেবক দলের শীর্ষ নেতৃত্বে আসছেন সোহানুর রহমান সুমন Logo টোল পুনর্নির্ধারণ না করেই উদ্বোধন হলো পায়রা সেতু পায়রা সেতুতে ফেরির ৭ গুণ টোল পরিবহন ব্যবসায়ীরা ক্ষুব্ধ। Logo বনশ্রী থেকে কথিত মানবাধিকার সংস্থার চেয়ারম্যানকে অস্ত্রসহ আটক। Logo বরিশালে নগরীর ভাটারখালের আলোচিত মামলার আসামী সুমন জেল হাজতে Logo মহাসড়কে বাসের মুখোমুখি সংঘর্ষে মা ও শিশু নিহত। Logo এসএসসি ০২ ব্যাচ বাংলাদেশ গ্রুপের বর্ষপূর্তিতে বর্নাট্য আয়োজন। Logo ঠাকুরগাঁওয়ে সাংবাদিকদের সাথে নবাগত ইউএনও’ মতবিনিময়।

বরিশালের জাগুয়া ইউনিয়নে আওয়ামী লীগ নেতার ছেলেকে কুপিয়ে জখম

দৈনিক আলোকিত প্রভাত / ৪১ বার পঠিত
আপডেট সময় : বৃহস্পতিবার, ২ সেপ্টেম্বর, ২০২১, ৯:০৪ অপরাহ্ণ

নিজস্ব প্রতিবেদক
বরিশাল সদর উপজেলার জাগুয়ায় স্থানীয় এক আওয়ামী লীগ নেতার ছেলেকে কুপিয়ে জখম করা হয়েছে। ইউনিয়ন আ’লীগের সহ-সভাপতি আমির হোসেন ওরফে আলম মাস্টারের ছেলে আরাফাত হোসেনকে (২২) বৃহস্পতিবার সকালে পশ্চিম চন্ডিপুর জামে মসজিদ এলাকায় এলোপাতাড়ি কুপিয়ে ফেলে রেখে যায় একই এলাকার কতিপয় যুবক। রক্তাক্ত অবস্থায় তাকে উদ্ধার করে বরিশাল শের-ই বাংলা মেডিকেল কলেজ (শেবাচিম) হাসপাতালে ভর্তি করা হয়েছে।

ছেলের ওপর হামলার কারণ হিসেবে আওয়ামী লীগ নেতা মাদক বিক্রির প্রতিবাদ করার কথা বললেও স্থানীয়রা জানিয়েছে, মেয়ে সংক্রান্ত বিষয় নিয়ে স্থানীয় তোজাম্বর আলী মন্নানের ছেলে আক্তার হোসেন খোকা, মোসলেম হাওলাদারের জুয়েল হাওলাদার ও জিকু হাওলাদারের বিরোধ চলছিল। ধারণা করা হচ্ছে, এই বিরোধীয় জেরে যুবকের ওপর হামলা হয়েছে।

প্রত্যক্ষদর্শীরা জানায়, সকালে পশ্চিম চন্ডিপুর মসজিদের সম্মুখে সমবয়সি যুবকদের মধ্যে আকস্মিক সংঘর্ষ বাধলে পুরো এলাকায় উত্তেজনা ছড়িয়ে পড়ে। এসময় আমির হোসেন ওরফে আলম মাস্টারের ছেলে আরাফাত হোসেনকে রক্তাক্ত অবস্থায় মাটিতে পড়ে থাকতে দেখা যায়। এবং হামলাকারীরা ততক্ষণে পালিয়ে যায়। পরক্ষণে স্থানীয়রা তাকে উদ্ধার করে শেবাচিম হাসপাতালের নিয়ে যায়।

খবর পেয়ে কোতয়ালি মডেল থানা পুলিশ ঘটনাস্থল পরিদর্শন করলেও এই ঘটনায় কাউকে আটক করতে পারেনি।আমির হোসেন ওরফে আলম মাস্টার জানান, এলাকায় কতিপয় যুবক মিলে মাদকের একটি সিন্ডিকেট গড়ে তুলেছে। এই বিষয়টি প্রতিবাদ করে আসছিল তার ছেলে। এতে ক্ষুব্ধ হয়ে মাদক কারবারীরা হামলা চালিয়ে কুপিয়ে ফেলে যায়।

তবে স্থানীয় একটি সূত্র জানিয়েছে, যাদের বিরুদ্ধে হামলার অভিযোগ করা হচ্ছে তারা আরাফাতের বন্ধু হিসেবে পরিচিত। শোনা যাচ্ছে, এলাকার একটি তুচ্ছ ঘটনাকে নিয়ে নিজেরা সংঘর্ষে জড়িয়েছে।

কোতয়ালি মডেল থানা পুলিশের ভারপ্রাপ্ত কর্মকর্তা (ওসি) ফয়সাল আহম্মেদ জানিয়েছেন, সংঘর্ষের খবর পেয়ে ঘটনাস্থলে পুলিশ পাঠানো হয়েছিল। কিন্তু এর আগেই হামলাকারীরা পালিয়ে গেছে। এই ঘটনায় অভিযোগ পেলে আইনগত ব্যবস্থা গ্রহণ করা হবে।’


আপনার মতামত লিখুন :

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *

এ জাতীয় আরও খবর

ফেসবুকে আমরা

Theme Customized By Theme Park BD