1. admin@dailyalokitoprovat.com : admin :
শুক্রবার, ২৭ মে ২০২২, ১২:৩৬ পূর্বাহ্ন
সংবাদ শিরোনাম :
সয়াবিনের বাম্পার ফলন হওয়ার পরেও, কৃষকের মাথায় হাত। তালতলীতে নৌকা মার্কার প্রার্থী সংবাদ সম্মেলন। একটি দৃষ্টি নন্দন সৌন্দর্যময় বিনোদন কেন্দ্র, কল্পনা পিকনিক স্পট। ঝালকাঠি জেলা কৃষকদলের কমিটি গঠন। নেত্রকোণায় সরকারি জীবন বীমা কর্পোরেশনের মতবিনিময় সভা অনুষ্ঠিত। কেশবপুরের মঙ্গলকোটে জাতীয় কবি কাজী নজরুল ইসলাম-এর ১২৩ তম জন্মজয়ন্তী উদযাপন। কেশবপুরে আনসার ও গ্রাম প্রতিরক্ষা বাহিনীর সমাবেশ। জাতীয় ভিটামিন ‘এ’ প্লাস ক্যাম্পেইন ২০২২ উপলক্ষে ঝালকাঠিতে সাংবাদিকদের ওরিয়েন্টেশন কর্মশালা অনুষ্ঠিত। মানবেতর জীবন যাপন করছেন ঠাকুরগাঁওয়ের একতা বুদ্ধি প্রতিবন্ধী স্কুল ও পুনর্বাসন কেন্দ্রের শিক্ষক কর্মচারীরা। বগুড়ায় র‌্যাবের অভিযানে কাহালুতে নকল স্বর্ণের মূর্তিসহ আটক ২।

বরিশালে সাংবাদিককে হেনস্থার অভিযোগ

দৈনিক আলোকিত প্রভাত
  • আপডেট সময় : সোমবার, ২ আগস্ট, ২০২১
  • ১৬১ বার পঠিত

নিজস্ব প্রতিবেদক :: বরিশালে ভ্রাম্যমান আদালতের অভিযান চলাকালে সেই অভিযানের ছবি তোলার সময় এক ফটো সাংবাদিককে হেনস্থা করার অভিযোগ উঠেছে। পাশাপাশি ওই সাংবাদিককে দেখে নেওয়ার হুমকিও দিয়েছেন ভ্রাম্যমান আদালতের নির্বাহী ম্যাজিস্ট্রেট রয়া ত্রিপুরা। তবে ওই নির্বাহী ম্যাজিস্ট্রেট জানিয়েছে, কোনো হেনস্থা তো নয়ই বরং আমাদের সাথে পর্যায়ক্রমে খারাপ ব্যবহার করেছেন ওই সাংবাদিক।

সোমবার দুপুরে বরিশাল নগরীর সাংবাদিক মাইনুল হাসান সড়কের মুখে এই ঘটনা ঘটে।

হেনস্থার শিকার দৈনিক যুগান্তরের ফটো সাংবাদিক শামীম আহম্মেদ বলেন, ভ্রাম্যমান আদালতের অভিযানের খবর শুনে সাংবাদিক মাইনুল হাসান সড়কের মুখে যাই। এসময় নির্বাহী ম্যাজিস্ট্রেট রয়া ত্রিপুরা অভিযান পরিচালনাকালে আমি ছবি তোলার জন্য ক্যামেরা বের করার সাথে সাথেই আমি এখানে কি করছি প্রশ্ন করেন রয়া ত্রিপুরা। এরপর তাকে আমি সংবাদকর্মী পরিচয় দেই এবং দৈনিক যুগান্তরে কাজ করি বলে জানাই। সে আমার পরিচয় পত্র দেখতে চাইলে তাও দেখাই। পাশে থাকা আইনশৃঙ্খলা রক্ষাকারি বাহিনীর এক সদস্য আমাকে আটকও করতে চায়। পরে আমার ভিজিটিং কার্ড চায় রয়া ত্রিপুরা। তাকে সেটা দেয়ার পর আমাকে দেখে নেওয়ার হুমকিও দিয়েছেন।

অভিযোগের বিষয়ে ভ্রাম্যমান আদালতের নির্বাহী ম্যাজিস্ট্রেট রয়া ত্রিপুরা বলেন, নগরীর সদর রোডে ভ্রাম্যমান আদালতের অভিযান পরিচালনাকালে সাংবাদিক মাইনুল হাসান সড়কের মুখে একটি অপচিক্যাল দোকান খোলা দেখতে পেয়ে সেখানে যাই। এসময় আবার তিন যুবক মোটরসাইকেলে করে কোথাও যাওয়ার সময় তাদের সিগন্যাল দিয়ে দাড়া করানো হয়। ভ্রাম্যমান আদালত চললে এমনিতেই তো মানুষের অনেক ভীর হয়ে যায়, তাই সেখান থেকে লোকজনদের সরে যেতে বলা হয়। এসময় ওই সাংবাদিকও দাড়িয়ে ছিলেন। আমরা তো আর জানতাম না যে উনি সাংবাদিক। উনি যে ছবি তুলতে চান, রিপোর্ট করতে চান সেটা কিন্তু আমাদেরকে বলেনি। আমার সাথে প্রথম থেকেই উচ্চ গলায় কথা বলছিলেন। এসময় আমি ওনাকে বলেছি আপনি কোর্টের সাথে এমনভাবে কথা বলতে পারেনা। আমার সাথে অতটুকু কথাই হয়েছে। তাকে কেউ আটক করতে বলেনি, গাড়িতে ওঠার কথাও বলেনি। উনি বরাবরই আমার সাথে খারাপ ব্যবহার করেছে। কোনো মানুষকে অসম্মান করে আমরা কোর্ট পরিচালনা করিনা।

ন্যাশনাল ডেইলিজ ব্যুরো চীফ এ্যাসোসিয়েশন বরিশালের সভাপতি ও শহীদ আব্দুর রব সেরনিয়াবাত বরিশাল প্রেসক্লাবের সাবেক সাধারণ সম্পাদক পুলক চ্যাটার্জী বলেন, ফটো সাংবাদিক শামীম আহম্মেদের মেয়ে ঢাকা বিশ্ববিদ্যালয়ের ছাত্রী। বরিশালের পরিচিত মুখ। সিনিয়র এই সাংবাদিক মাঠে ঘুরে কাজ করছেন এখনও। তার সঙ্গে যে ঘটনাটি ঘটেছে সেটা সমীচিন হয়নি বলে মনে করি।

Leave a Reply

Your email address will not be published.

এ জাতীয় আরও খবর

ফেসবুকে আমরা