শুক্রবার, ০৩ ডিসেম্বর ২০২১, ০৩:৪৫ অপরাহ্ন
শিরোনাম :
Logo কৃষকের আঙিনায় সোনালি স্বপ্ন। Logo বিএমএসএফ হবে প্রকৃতই সাংবাদিকবান্ধব সংগঠনে কেন্দ্রীয় নেতৃবৃন্দ। Logo নেতার সার্থকতা হয় তার কর্মে”। Logo ১২০ জনকে স্কুল ব্যাগ বিতরণ করেন কোডেকে এনজিও। Logo সিংড়ায় নৌকার মাঝি নাছিরের উঠান বৈঠক। Logo এইচ.এস.সি পরীক্ষা ২০২১ উপলক্ষে বারহাট্টা সরকারি কলেজে মতবিনিময় সভা অনুষ্ঠিত। Logo চাকুরী দেয়ার প্রলোভন দেখিয়ে অসহায় মানুষদের টাকা হাতিয়ে নিয়েছে প্রতারক পারভেজ। Logo বরিশালে পল্লিবিদ্যুতের খুটি ও সড়ক ও জনপদের পিলার দিয়ে দোকান ও পুকুর ঘাট নির্মাণ। Logo কাহালুতে খাদ্য গুদামে আমন ধান, চাল সংগ্রহের উদ্বোধন। Logo আসন্ন বাকেরগঞ্জ নিয়ামতি ইউনিয়ন নির্বাচন উপলক্ষে বিশেষ বর্ধিত সভা অনুষ্ঠিত।

বাকেরগঞ্জের হাট-বাজারে অবৈধ পলিথিনের জমজমাট ব্যবসা।

দৈনিক আলোকিত প্রভাত / ৫৮ বার পঠিত
আপডেট সময় : মঙ্গলবার, ২৬ অক্টোবর, ২০২১, ১২:১৪ পূর্বাহ্ণ

খান মেহেদী,বাকেরগন্জ প্রতিনিধি।
বাকেরগঞ্জে প্রশাসনের নাকের ডগায় চলছে পলিথিন বিক্রি। বাকেরগঞ্জ উপজেলার প্রায় প্রতিটি হাট-বাজারে ছোট বড় সব বাজারে, লোকালয়ের দোকানসহ অলিগলির প্রতিটি দোকানেই মিলছে অবৈধ ঘোষিত পরিবেশ দূষণকারী পলিথিন। প্রশাসনের নজরদারি না থাকায় ব্যবহার হচ্ছে নিষিদ্ধ এইচডিপিই (হাইয়ার ডেনসিটি পলি ইথালিন) পলিব্যাগ। যার ব্যবহার মানুষের জীবনে মারাত্মক ক্ষতি করলেও পরিবেশ অধিদপ্তরের কর্মর্কতারা নীরব থাকায় এই অবস্থার সৃষ্টি হচ্ছে। পরিবেশ বিপর্যয়ের কারনে সরকারী ভাবে পলিথিন ব্যবহার নিষিদ্ধ হলেও নিয়মের তোয়াক্কা না করে দেদারছে উপজেলার প্রায় সর্বত্রই বিক্রি হচ্ছে এসব ক্ষতিকর পলিথিন ব্যাগ। এর ফলে পরিবেশের মারাত্বক ক্ষতি সাধন হচ্ছে।

অপচনশীল এই পলিথিন যত্রতত্র ফেলার কারণে পানি মাটি ও বাতাস দূষিত হয়ে পরিবেশের মারাত্মক ক্ষতি করছে। মানুষ আক্রান্ত হচ্ছে নানা রোগ-ব্যাধিতে। এ ছাড়াও পানি চলাচলের নালা, নর্দমা, খালবিল যত্রতত্র ছড়িয়ে পড়ছে এতে পানি চলাচলে বাধাগ্রস্ত হয়ে জলজটের সৃষ্টি হচ্ছে। জমে থাকা পানিতে ব্যাকটেরিয়াসহ নানা রোগ জীবাণু ছড়াছে। পলিথিন হাতের নাগালে পাওয়ার কারণে পরিবেশবান্ধব পাটের ব্যাগের ব্যবহার বাড়ছে না।

সিমেন্ট সারসহ ১৪টি পণ্যে পলিব্যাগ ব্যবহারের অনুমোদন থাকলেও এর বাইরে চলছে পলিথিনের অগাধ ব্যবহার। ফলে বন্ধ হয়ে যাচ্ছে পাট ও পাট দিয়ে উৎপাদিত পণ্যের কারখানা। বাড়ছে না কুটির শিল্পের কাজ। বেকার হচ্ছেন মালিক ও শ্রমিকরা।

অনুসন্ধানে হাট-বাজার ঘুরে দেখা গেছে, বাকেরগঞ্জ উপজেলা শহরেই রয়েছে কয়েকটি পলিথিনের গোডাউন। কয়েকজন প্রতিষ্ঠিত মুদি পাইকারি ব্যাবসায়িরা ঢাকা থেকে ট্রাক ভড়ে পলিথিন আমদানি করে উপজেলার বিভিন্ন স্থানে পাইকারি বিক্রি করে আসছে। অথচ প্রশাসনের নিরবতাকে তাহারা কাজে লাগিয়ে রাতারাতি কুটিপাটি বনে গেছেন। এই পলিথিন বেচাকেনা হচ্ছে মুদি দোকান, কসমেটিক্স, ফলের বাজার, কাঁচা বাজার, মাছের বাজার, মাংসের বাজারে এর ব্যবহার বেশী লক্ষ করা যাচ্ছে।

এছাড়াও চাল-ডাল, মরিচ, হলুদ, চিনি, ময়দা, মাছ, কাচা বাজারে সবজিসহ বিভিন্ন পণ্য আনা-নেওয়ার কাজে অবাধে ব্যবহার করা হচ্ছে ক্ষতিকর এ নিষিদ্ধ পলিথিন। এ ছাড়াও পলিথিনে মুড়ি ও বেকারীর তৈরী বিভিন্ন খাদ্যদ্রব্য প্যাকেট করে বাজারে বিক্রি করায় সর্বত্র ছড়িয়ে-ছিটিয়ে থাকায় পরিবেশের জন্য মারাত্বক ক্ষতি বয়ে আনছে।

বাকেরগঞ্জ উপজেলায় অবৈধ পলিথিন বিক্রির উল্লেখযোগ্য স্থানের মধ্যে রয়েছে, বাকেরগঞ্জ বন্দর, বোয়ালিয়া বাজার, কলসকাঠি, কালিগঞ্জ, মহেশপুর, নিয়ামতি সহ বিভিন্ন বাজারে। এছাড়াও মফস্বলে রয়েছে একাধিক সিন্ডেকেট। সিন্ডেকেটে রয়েছে বেতনভুক্ত কর্মচারী বাইসাইকেল, অটো রিকশায় বহন করে বিভিন্ন হাট বাজারে পার্সেল দিয়ে থাকেন।

বাংলাদেশে ১৯৮২ সালে প্রথম পলিথিন ব্যাগের বাজারজাত ও ব্যবহার শুরু হয়। এটি সহজে পরিবহন ও স্বল্প মূল্যে পাওয়ার কারণে অল্প সময়ে মানুষের হাতে হাতে পৌঁছে যায়। কিন্তু ব্যবহারের পর এটি যত্রতত্র ফেলার কারণে পরিবেশের মারাত্মক বিপর্যয় ঘটায় এবং এটি ক্ষতিকারক পণ্য হিসেবে চিহ্নিত হয়। ক্ষতিকারক এই পলিথিন বন্ধের লক্ষ্যে ২০০২ সালে তৎকালীন চারদলীয় জোট সরকার পলিথিন ব্যাগ উৎপাদন, আমদানি, বাজারজাত, ক্রয়-বিক্রয়, প্রদর্শন, মজুদ ও বিতরণ নিষিদ্ধ করে। তবে পরিবেশ সংরক্ষণ আইন ১৯৯৫ (সংশোধিত ২০০২) এর ১৫(১) অনুচ্ছেদের ৪(ক) ধারায় পলিথিন উৎপাদন, আমদানি ও বাজারজাতকরণের জন্য অপরাধীদের সর্বোচ্চ ৫০ হাজার টাকা জরিমানা অথবা ৬ মাসের কারাদন্ডের বিধান আছে। কিন্তু অসাধু ব্যবসায়ীরা কিছুদিন লুকিয়ে বেচাকেনা করলেও এখন তা প্রকাশ্যে বিক্রি করছে। অচিরেই এর ব্যবহার নিষিদ্ধ না করলে পরিবেশ ও কৃষি উৎপাদনের চরম আকার ধারণ করবে বলে এলাকার সুধী সমাজ মনে করছেন।


আপনার মতামত লিখুন :

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *

এ জাতীয় আরও খবর

ফেসবুকে আমরা

Theme Customized By Theme Park BD