1. admin@dailyalokitoprovat.com : admin :
শুক্রবার, ০১ জুলাই ২০২২, ০১:০১ পূর্বাহ্ন
সংবাদ শিরোনাম :
নবাগত ওসির সাথে রুহিয়া থানা প্রেসক্লাবের সদস্যদের সৌজন্য সাক্ষাৎ ও মতবিনিময় সভা। একজন তরুণ হাফেজের বেঁচে থাকার জন্য আর্থিক সাহায্যের আকুল আবেদন। ঝালকাঠিতে গ্রামীন ব্যাংকের ব্রাঞ্চ ম্যানেজার’র দূর্নীতির মামলায় ১০বছরের কারাদন্ড। তালতলী ইউপি নির্বাচনে স্বতন্ত্র প্রার্থীর বিজয়। কাহালুতে ক্ষুদ্র ও প্রান্তিক কৃষকদের মাঝে, বিনামূল্য সার বীজ বিতারন। জেলা প্রশাসনের উদ্যোগে সাহিত্য সম্মেলন ও সাংস্কৃতিক অনুষ্ঠানে লেখক হিসেবে সম্মাননা ক্রেস্ট পেল সাংবাদিক বাচ্চু। কেশবপুরের বাঁশবাড়িয়া বাজার পরিচালনা কমিটির নির্বাচন সম্পন্ন। নেত্রকোনার সুলতানকে দেখতে মানুষের ভিড়। জন্মনিবন্ধন সনদে অতিরিক্ত টাকা আদায়,সুবিদপুর উদ্যোক্তার সাথে স্থানীয় জনতার হাতাহাতি। কাহালুতে প্রাণী সম্পদ অফিসে খামারীদের মধ্যে গরু,ছাগল বিতরণ।

বাকেরগঞ্জে বাড়ি-ঘরের মধ্যে শতাধিক অবৈধ ইটভাটা।

দৈনিক আলোকিত প্রভাত
  • আপডেট সময় : বুধবার, ২ ফেব্রুয়ারি, ২০২২
  • ৯৭ বার পঠিত

বাকেরগন্জ প্রতিনিধি।
বাকেরগঞ্জ উপজেলার কলসকাঠিসহ বিভিন্ন ইউনিয়নে গড়ে উঠেছে শতাধিক অবৈধ ইটভাটা। এতে ভয়াবহ দুষণে হুমকীর মুখে পড়ছে পরিবেশ। এসব ইটভাটায় কাঠ পোড়ানোয় উজাড় হয়ে যাচ্ছে বনজসম্পদ। পরিবেশ অধিদপ্তরের লাইসেন্সবিহীন ইটভাটার মালিকরা বাড়ি-ঘরের ভিতরে নির্মাণ করছে টিনের চিমনির ইটভাটা এবং রহস্যজনক ভূমিকায় পরিবেশ অধিদপ্তর। উপজেলার কলসকাঠী ইউনিয়নসহ গারুড়িয়া, দুধল, চরামদ্দি, ফরিদপুর এবং দাড়িয়াল ইউনিয়নে অবৈধভাবে ইটভাটা গড়ে উঠেছে। ফসলী জমি ও বাড়ি-ঘরের ভিতরে ব্যাঙের ছাতার মতো গড়ে উঠেছে অবৈধ ইটভাটা। নিষিদ্ধ ড্রাম চিমনি আইন অমান্য করে ইটভাটাগুলোতে কয়লার বদলে পোড়াঁনো হচ্ছে কাঠ। যার ফলে উজাড় হচ্ছে বনজসম্পদ, দূষিত হয়ে হুমকীর মুখে পড়ছে পরিবেশ। রবিশস্য, আমের মুকুলসহ সবকিছু নষ্ট হয়ে যাচ্ছে। এমনকি ইট ব্যবসায়ীরা সরকারের লাখ লাখ টাকা ভ্যাট আয়কর ফাঁকি দিয়ে তাদের ব্যবসা চালিয়ে যাচ্ছে। কলসকাঠী এক ব্যবসায়ী জানান, বাড়ি-ঘরের ভিতর থেকে ইটভাটা সরানো না হলে নষ্ট হয়ে যাবে আবাদী জমি। এছাড়া বিভিন্ন রোগে আক্রান্ত হবে শিশুরা। পরিবেশ অধিদপ্তরের অসাধু কর্মকর্তাদের ম্যানেজ করে ইটভাটার মালিকরা ব্যবসা চালিয়ে যাচ্ছে। সরেজমিনে দেখা গেছে, বিগত বছরের তুলনায় এ বছর অবৈধ ড্রাম চিমনির ইটভাটার পরিমান বেড়ে গেছে বহুগুনে।এরমধ্যে উল্লেখযোগ্য ইটভাটা কলসকাঠি ৬ নং ওয়ার্ড এর পান্ডব নদীর চরে মৃধা ব্রিকস, একতা ব্রিকস, শাপলা ব্রিকস, দুবাই ব্রিকস, গাজী ব্রিকসসহ প্রায় অর্ধশতাধিক ড্রাম চিমনির ইটভাটা গড়ে উঠেছে। তারা নদীর চর থেকে মাটি কেটে ইট তৈরি করছে।কলসকাঠীর অধিকাংশ ইটভাটার মালিক বাড়ি-ঘরের ভিতরে ইট পোড়ানোর কাজ চালিয়ে যাচ্ছেন। পরিবেশ অধিদপ্তরের ছাড়পত্র অনুযায়ী অনুমোদন নিয়ে কয়লার মাধ্যমে ইট পোড়াঁনোর অনুমতি থাকলেও নিয়মনীতির তোয়াক্কা না করে তাদের কার্যক্রম চালিয়ে যাচ্ছে কাঠ পুড়িয়ে। বাড়ি-ঘরের ভেতর থেকে ওই সকল ইটভাটা সরিয়ে নেওয়ার জন্য বিভিন্ন দপ্তরসহ ইউপি চেয়ারম্যান বরাবর ইতোমধ্যে লিখিত আবেদন করা হয়েছে।অপরদিকে, বাড়ি-ঘরের ভেতরে ইটভাটা তৈরি করে পরিবেশ এবং বনজসম্পদ নষ্ট করায় ইটভাটার মালিকদের বিরুদ্ধে অচিরেই অভিযানের কথা জানিয়েছে পরিবেশ অধিদপ্তরের কর্মকর্তারা।

Leave a Reply

Your email address will not be published.

এ জাতীয় আরও খবর

ফেসবুকে আমরা