1. admin@dailyalokitoprovat.com : admin :
শুক্রবার, ২৭ মে ২০২২, ০৫:৩৩ পূর্বাহ্ন
সংবাদ শিরোনাম :
সয়াবিনের বাম্পার ফলন হওয়ার পরেও, কৃষকের মাথায় হাত। তালতলীতে নৌকা মার্কার প্রার্থী সংবাদ সম্মেলন। একটি দৃষ্টি নন্দন সৌন্দর্যময় বিনোদন কেন্দ্র, কল্পনা পিকনিক স্পট। ঝালকাঠি জেলা কৃষকদলের কমিটি গঠন। নেত্রকোণায় সরকারি জীবন বীমা কর্পোরেশনের মতবিনিময় সভা অনুষ্ঠিত। কেশবপুরের মঙ্গলকোটে জাতীয় কবি কাজী নজরুল ইসলাম-এর ১২৩ তম জন্মজয়ন্তী উদযাপন। কেশবপুরে আনসার ও গ্রাম প্রতিরক্ষা বাহিনীর সমাবেশ। জাতীয় ভিটামিন ‘এ’ প্লাস ক্যাম্পেইন ২০২২ উপলক্ষে ঝালকাঠিতে সাংবাদিকদের ওরিয়েন্টেশন কর্মশালা অনুষ্ঠিত। মানবেতর জীবন যাপন করছেন ঠাকুরগাঁওয়ের একতা বুদ্ধি প্রতিবন্ধী স্কুল ও পুনর্বাসন কেন্দ্রের শিক্ষক কর্মচারীরা। বগুড়ায় র‌্যাবের অভিযানে কাহালুতে নকল স্বর্ণের মূর্তিসহ আটক ২।

বাকেরগঞ্জে সাবেক এমপি আবুল হোসেনের বাসভবন বিএনপি কার্যালয়।

দৈনিক আলোকিত প্রভাত
  • আপডেট সময় : বুধবার, ৩০ মার্চ, ২০২২
  • ৮৯ বার পঠিত

বাকেরগঞ্জ প্রতিনিধি।
বাকেরগঞ্জে উপজেলা বিএনপির দলীয় কোন অফিস নেই। বিএনপির রাজনীতি যেন সাবেক এমপি আবুল হোসেন খানের বাসবভনে বন্ধী হয়ে পরেছে। তৃণমূল নেতা-কর্মীদের দাবি সত্বেও দীর্ঘদিনও নেয়া হয়নি উপজেলা বিএনপির দলীয় অফিস। দলকে কুক্ষীগত করে রাখতেই সাবেক এমপি ও উপজেলা বিএনপির সভাপতি আবুল হোসেন খান দলীয় অফিস না দিয়ে তার বাসভবনে বসেই নামেমাত্র দলীয় কর্মসূচি পালন করছেন।

সূত্র জানায়, বাকেরগঞ্জ উপজেলায় বিএনপির কোন কার্যালয়ের সন্ধান পাওয়া যায়নি। ২০০১ সালে বিএনপি ক্ষমতায় আসার আগে শহরের বাকেরগঞ্জ বন্দরের বাজার রোডের একটি ভাড়া ঘরে দলীয় অফিস ছিলো।২০০১ সালের নির্বাচনে আবুল হোসেন খান এমপি নির্বাচিত হলে দলীয় অফিস গুটিয়ে তিনি তার বাসায় বসে কার্যক্রম পরিচালনা করেন। ফলে সেই থেকে আর উপজেলা বিএনপির কোনো অফিস খুঁজে পাওয়া যায়নি। এখন মাঝে মাঝে সাবেক এমপি আবুল হোসেন খানের বাসভবনে বসে করা হয় দলীয় কাজ। বিশ্বস্ত সূত্র জানায়, গত ৫ মার্চ বাকেরগঞ্জ উপজেলা বিএনপির একটা প্রোগ্রামে দলের সিনিয়র নেতৃবৃন্দ ও তৃণমূল কর্মীদের দাবির প্রেক্ষিতে বরিশাল জেলা বিএনপির নেতৃবৃন্দ বাকেরগঞ্জে বিএনপির দলীয় কার্যালয় নেয়ার নির্দেশ দেয়। বাকেরগঞ্জ উপজেলা বিএনপির একাধিক সিনিয়র নেতা জানান, ওইদিন বরিশাল জেলা বিএনপির নেতৃবৃন্দর উপস্থিতিতে সাবেক এমপি আবুল হোসেন খান ওয়াদা করেও এতদিনে তিনি দলীয় অফিস নিতে পারেননি। তৃণমূল নেতা-কর্মীদের দাবির মুখে সম্প্রতি উপজেলা বিএনপির সিনিয়র নেতা হারুন সিকদার ও আব্দুস শুকুর বাচ্চু নেগাবানের নেতৃত্ব দলের একটি সিনিয়র গ্রুপ বাকেরগঞ্জে দলীয় অফিস নেয়ার জন্য সাবেক এমপি আবুল হোসেন খানের সাথে আলোচনায় মিলিত হলে তিনি কৌশলে বিষয়টি এড়িয়ে যান। অথচ ২৮ মার্চ সাবেক এমপি আবুল হোসেন খান তার বাসায় উপজেলা বিএনপির নাম দিয়ে একটি সাইনবোর্ড লাগায়। একজনের ব্যক্তিগত বাসায় দলীয় অফিস মেনে নিতে নারাজ দলীয় নেতা-কর্মীরা। এ ঘটনায় দলীয় তৃণমূল নেতা-কর্মীরা বিক্ষুদ্ধ হয়ে উঠেছে। তাদের মনে চাপা ক্ষোভ ও উত্তেজনা বিরাজ করছে। তাদের এ ক্ষোভ যে কোন সময় বিক্ষোভে রুপ নিতে পারে।

এ বিষয়ে জেলা বিএনপির আহবায়ক কমিটির সদস্য ও উপজেলা বিএনপির সাবেক সহ-সভাপতি হারুন সিকদার জানান, বিএনপি ক্ষমতায় থাকাকালীন ২০০১ সালে শহরের বাজার রোড এলাকায় উপজেলা অফিস ছিল। ২০০১ সালের পর সে অফিস বন্ধ হয়ে যায়।২০০৬-০৭ সালে তত্ত্বাবধায়ক সরকার ক্ষমতায় এলে আর কোনো অফিস উপজেলা বিএনপি করেনি।

উপজেলা বিএনপির অন্যতম নেতা আব্দুস শুকর বাচ্চু নেগাবান বলেন, উপজেলা বিএনপির স্থায়ী কোন অফিস না থাকলেও তাদের কার্যক্রম থেমে নেই। যদিও সাবেক এমপি আবুল হোসেন কান দলকে কুক্ষীগত করে রাখতে তার বাসভবনে দলীয় সাইনবোর্ড লাগিয়েছেন৷ তিনি আরও বলেন, তার ব্যক্তিগত বাসায় দলীয় কার্যক্রম চলতে পারেনা।

সাবেক এমপি আবুল হোসেন খানের কাছে তার বক্তব্য জানতে চাইলে তিনি এ বিষয়ে কথা বলতে অপারগতা প্রকাশ করেন।

Leave a Reply

Your email address will not be published.

এ জাতীয় আরও খবর

ফেসবুকে আমরা