1. admin@dailyalokitoprovat.com : admin :
শুক্রবার, ২৭ মে ২০২২, ০৯:১৩ অপরাহ্ন
সংবাদ শিরোনাম :
রাজশাহীর মোহনপুরে প্রাইভেটকার ও ট্রাকের মুখোমুখি সংঘর্ষ। কাহালু’র দূর্গাপুর ইউ পি নির্বাচনে চেয়ারম্যান ও মেম্বার প্রার্থীদের সঙ্গে মতবিনিময় সভা অনুষ্ঠিত। প্রেমিক’র বিয়ের খবরে প্রেমিকার আত্নহত্যা । কাহালু উপজেলা চেয়ারম্যান সুরুজকে ফুলেল শুভেচ্ছা বিনিময়। হাইওয়ে যেন মরন ফাঁদ সাধারণ মানুষ হচ্ছে দুর্ঘটনার শিকার। নেত্রকোনার মগড়া নদীতে ভেসে আসা মাথাবিহীন লাশ উদ্ধার। চুকনগর বধ্যভূমি পরিদর্শন করেন ভারতীয় হাইকমিশনার শ্রী বিক্রম দ্রোয়াস্বামী। সয়াবিনের বাম্পার ফলন হওয়ার পরেও, কৃষকের মাথায় হাত। তালতলীতে নৌকা মার্কার প্রার্থী সংবাদ সম্মেলন। একটি দৃষ্টি নন্দন সৌন্দর্যময় বিনোদন কেন্দ্র, কল্পনা পিকনিক স্পট।

বিসিসি’র কাউন্সিলর মান্নাকে তুলে নেওয়ার অভিযোগ

দৈনিক আলোকিত প্রভাত
  • আপডেট সময় : শনিবার, ২১ আগস্ট, ২০২১
  • ১০৩ বার পঠিত

ডেক্স রিপোর্ট ঃ-
বরিশাল সিটি কর্পোরেশনের কাউন্সিলর ও মহানগর আওয়ামী লীগের সাংগঠনিক সম্পাদক শেখ সাইয়েদ আহমেদ মান্না কে আইন-শৃঙ্খলা বাহিনী তুলে নিয়ে গেছে বলে অভিযোগ উঠেছে।

শুক্রবার রাত পৌনে ১০টায় রাজধানীর মোহাম্মদপুর থানাধিন সিয়া মসজিদ সংলগ্ন বোনের বাসা থেকে দুজন সাদা পোশাকধারী লোক আইন-শৃঙ্খলা বাহিনীর সদস্য পরিচয় দিয়ে ধরে নিয়ে যায় বলে দাবি মান্নার বড় ভাই শেখ মান্নার।

তবে শেখ সাইয়েদ আহমেদ মান্নাকে ধরে নেয়ার বিষয়টি সম্পর্কে কিছু জানা নেই বলে দাবি করেছেন বরিশাল কোতয়ালী মডেল থানা এবং রাজধানীর মোহাম্মদপুর থানা পুলিশ।

শেখ সাইয়েদ আহমেদ মান্না বরিশাল সিটি কর্পোরেশনের ২১ নম্বর ওয়ার্ডের কাউন্সিলর এবং বরিশাল জেলা মুক্তিযোদ্ধা সংসদের সাবেক কমান্ডার শেখ কুতুব উদ্দিন আহমেদ এর ছোট ছেলে।

তিনি বরিশাল সদর উপজেলা নির্বাহী কর্মকর্তার বাংলো এলাকায় পুলিশ ও আওয়ামী লীগ সংঘর্ষের ঘটনায় কোতয়ালী মডেল থানা পুলিশের দায়েরকৃত মামলার দুই নম্বর আসামি।

কাউন্সিলর শেখ সাইয়েদ আহমেদ মান্নার বড় ভাই শেখ কুতুব মান্না দাবি করেছেন, তার ছোট ভাই মান্না ঢাকার মোহাম্মদপুর সিয়া মসজিদ এলাকায় বোনের বাসায় অবস্থান করছিলেন।

এরিমধ্যে রাত ৯টা ৪৫ মিনিটে সিভিল পোশাকে আসা দুজন ব্যক্তি নিজেদের আইন-শৃঙ্খলা বাহিনীর সদস্য পরিচয় দিয়ে তাদের সাথে করে গাড়িতে তুলে নিয়ে যায়। তবে কোথায় নেয়া হয়েছে সে বিষয়টি জানায়নি ওই দুই ব্যক্তি।

তিনি আরও বলেন, ‘ঘটনার পর পরই মোহাম্মদপুর থানায় গিয়ে খোঁজ নেয়া হয়েছে। এমনকি কোতয়ালী মডেল থানায়ও খোঁজ নেয়া হয়েছে। তারা কেউ মান্নাকে ধরে আনেনি বলে আমাদের জানিয়েছে। এখন ডিবি সহ অন্যাসব স্থানে খোঁজ নেয়া হচ্ছে।

এ প্রসঙ্গে মোহাম্মদপুর থানার অফিসার ইনচার্জ (ওসি) মো. আবদুল লতিফ মতবাদকে বলেন, ‘একজন লোক এসেছিলেন কাউন্সিলর মান্নার খোঁজ করতে। তবে আমাদের থানার কেউ তাকে গ্রেফতার করেনি। তাছাড়া অন্য কোন বাহিনী তাকে গ্রেফতার করেছে কিনা সে বিষয়ে আমাদের কাছে কোন তথ্য নেই।

বরিশাল কোতয়ালী মডেল থানার অফিসার ইনচার্জ (ওসি) নুরুল ইসলাম বলেন, ‘কাউন্সিলর শেখ সাইয়েদ আহমেদ মান্না ইউএনও’র বাসায় হামলা এবং পুলিশের সরকারি কাজে বাধা ও হামলার ঘটনায় দায়ের করা মামলার দুই নম্বর এজাহারভুক্ত আসামি।

Leave a Reply

Your email address will not be published.

এ জাতীয় আরও খবর

ফেসবুকে আমরা