1. admin@dailyalokitoprovat.com : admin :
শুক্রবার, ২৭ মে ২০২২, ০৯:১২ অপরাহ্ন
সংবাদ শিরোনাম :
রাজশাহীর মোহনপুরে প্রাইভেটকার ও ট্রাকের মুখোমুখি সংঘর্ষ। কাহালু’র দূর্গাপুর ইউ পি নির্বাচনে চেয়ারম্যান ও মেম্বার প্রার্থীদের সঙ্গে মতবিনিময় সভা অনুষ্ঠিত। প্রেমিক’র বিয়ের খবরে প্রেমিকার আত্নহত্যা । কাহালু উপজেলা চেয়ারম্যান সুরুজকে ফুলেল শুভেচ্ছা বিনিময়। হাইওয়ে যেন মরন ফাঁদ সাধারণ মানুষ হচ্ছে দুর্ঘটনার শিকার। নেত্রকোনার মগড়া নদীতে ভেসে আসা মাথাবিহীন লাশ উদ্ধার। চুকনগর বধ্যভূমি পরিদর্শন করেন ভারতীয় হাইকমিশনার শ্রী বিক্রম দ্রোয়াস্বামী। সয়াবিনের বাম্পার ফলন হওয়ার পরেও, কৃষকের মাথায় হাত। তালতলীতে নৌকা মার্কার প্রার্থী সংবাদ সম্মেলন। একটি দৃষ্টি নন্দন সৌন্দর্যময় বিনোদন কেন্দ্র, কল্পনা পিকনিক স্পট।

মানবিক ছাত্রনেতা হাসানুজ্জামান অমি গাজী।

দৈনিক আলোকিত প্রভাত
  • আপডেট সময় : শুক্রবার, ৩০ জুলাই, ২০২১
  • ২১৪ বার পঠিত

কলাপাড়া প্রতিনিধি::বলছি বাংলাদেশ ছাত্রলীগ কলাপাড়া সরকারি এমবি কলেজ শাখার সাধারণ সম্পাদক হাসানুজ্জামান অমি গাজীর কথা। করোনা আতঙ্কে লকডাউনে যেখানে সারাদেশের মতো উপক‚লীয় পটুয়াখালীর কলাপাড়া উপজেলার মানুষ গৃহবন্দি, ঠিক সেই সময়ে তাঁদের সহায়তায় এগিয়ে এসেছে মোজাহার উদ্দিন বিশ্বাস কলেজ ছাত্রলীগের সাধারণ সম্পাদক লকডাউনের কারণে কর্মহীন মানুষকে সরকার চাল, ডাল ত্রাণ সহায়তা দিলেও প্রতিদিন কাঁচাবাজারে পণ্য কিনতে গিয়ে ভিড় করছে সর্বস্তরের মানুষ। এতে যেমন সামাজিক দূরত্ব মানা হচ্ছে না, তেমনি করোনার ঝুঁকি বাড়ছে। তাই করোনার ঝুঁকি থেকে মানুষকে রক্ষার জন্য এ মানবতার বাজার খুলেছে কলাপাড়ার কলেজ ছাত্রলীগ এর সাধারণ সম্পাদক সংগঠনের নেতা কর্মী দের সাথেনিয়ে এগিয়ে এসেছে মানুষের পাশে।

সরেজমিনে গিয়ে দেখা যায়, সবজি বাজারের পণ্য সংগ্রহকারীরা কেউ ভিক্ষুক, কেউবা রিকশা চালক, দিনমজুর। কর্মহীন শ্রমিক পরিবারের গৃহিনী ও শিশুরাও আসছে এ মানবতার বাজারে সবজি নিতে।

সবজি নিতে আসা মানুষরা জানান, কাজ নেই। রাস্তায় গাড়ি চলে না। টাকার অভাবে সরকারি ত্রাণ সহায়তার ডাল, আলু দিয়েই চলে প্রতিদিনের আহার। ছাত্ররা তাদের এ কাঁচা বাজারে সবজি দেয়ায় খুশি। একদিনের বাজারে অন্তত তিনদিন তাদের চলে যায়। বৃদ্ধ খালেক মিয়া যানান অমি গাজী সুধু করোনা কালিন সময় না সব আমাদের পাশে দাঁড়ান পবিত্র ঈদুল ফিতরে, ঈদুল আযহা,বা পরিবার অভাব অনটন আমরা কখনো তার কাছে এসে খালি হাতে ফিরিনি।
নয় বছরের রুবিনার ভবিষৎ এখন কুয়াশার মতো ধোঁয়াশা। পলিথিন ও তালপাতার ছোট্র ঝুপড়ি ঘর তার। এই ঘরে শুয়ে চাঁদের আলো, বৃষ্টির প্রথম স্পর্শ তাকে উপভোগ করতে হয় প্রতিরাতেই। আর বিদ্যুত না থাকায় অমাবশ্যার অন্ধকার তার নিত্য সঙ্গী।
সেই ঘরে শিকল বন্দী তার মা, মানসিক ভারসাম্যহীন খালা ও সত্তোরোর্ধ নানীর পাশে,দাঁড়ান তিনি। তার এসব ভূমিকা প্রশংসিত হয় সর্ব মহলে নিউজ হয়,প্রথম সারির একাধিক গণমাধ্যমে, তাদের এই মানবিক কর্মকান্ডের ভিডিও শেয়ার করে বাংলাদেশ আওয়ামী লীগের ভেরিফাইড পেইজে থেকে ধন্যবাদ দেওয়া হয়।

Leave a Reply

Your email address will not be published.

এ জাতীয় আরও খবর

ফেসবুকে আমরা