1. admin@dailyalokitoprovat.com : admin :
রবিবার, ২৯ মে ২০২২, ০৫:৪১ পূর্বাহ্ন
সংবাদ শিরোনাম :
জাতীয় সাংবাদিক সংস্থা রাজশাহী বিভাগ’র নবনির্বাচিত কমিটির সাধারণ সভা অনুষ্ঠিত। রাজশাহীর বাঘায় আলোচিত পাঁচ টাকার হোটেল মালিক আর নেই। নলছিটিতে মাদ্রাসা ছাত্রী অপহরণের এক মাসেও উদ্ধার হয়নি, উল্টো দু’টি মামলা। মান্দার এক রুখী উচ্চ বিদ্যালয়ে নবীন বরণ অনুষ্ঠান অনুষ্ঠিত। বরগুনায় গণহত্যা দিবস ২৯ ও ৩০শে মে। নেত্রকোনায় জঙ্গি সংগঠনের নারী সদস্য আটক। কলাপাড়ায় অরজগতা রুখতে শক্ত অবস্থানে কলেজ ছাত্রলীগ। সমুদ্রের তীরে নিখোঁজ পর্যটক ফিরোজ কে খুঁজছেন শাশুড়ি, ২৪ঘন্টা মেলেনি সন্ধান। আটপাড়ায় বাংলাদেশ-ভারত সম্প্রীতি পরিষদের সম্মেলন অনুষ্ঠিত। কেশবপুরের মঙ্গলকোটে রংধনু আর্ট একাডেমির শুভ উদ্বোধন।

মেহেন্দীগঞ্জে মাদ্রাসা সুপারের বিরুদ্ধে নিয়োগ বানিজ্য ও দুর্নীতির অভিযোগ উঠেছে।

দৈনিক আলোকিত প্রভাত
  • আপডেট সময় : শনিবার, ১৪ মে, ২০২২
  • ২২ বার পঠিত

নিজস্ব প্রতিবেদক।
বরিশালের কাজিরহাট থানাধীন এক মাদ্রাসা সুপারের বিরুদ্ধে নিয়োগ বানিজ্য, মাদ্রাসার অর্থ আত্মসাৎ, মাদ্রাসার শিক্ষকদের থেকে ঘুষসহ বিভিন্ন অনিয়ম ও দুর্নীতির অভিযোগ উঠেছে। এ ঘটনায় ভুক্তভোগী ও স্থানীয়রা গত ১২ মে ওই সুপারকে মাদ্রাসায় কয়েক ঘন্টা অবরুদ্ধ করে রাখেন। পরে স্থানীয় ভাবে আপোষ মিমাংসার মাধ্যমে ছেড়ে দেওয়া হয় বলে জানান স্থানীয়রা। কিন্তু বর্তমানে ওই এলাকায় সুপারের বিরুদ্ধে আলোচনা ও সমালোচনার ঝড় বইছে।

জানা যায় ,মেহেন্দিগঞ্জ উপজেলার কাজিরহাট থানার সন্তোষপুর নেছারিয়া ফাজিল মাদ্রাসায় মাওলানা মোঃ বেলাল হোছাইন ভারপ্রাপ্ত অধ্যক্ষ হিসাবে দায়িত্ব পালন করেন ১ মার্চ ২০১৫ থেকে ১৯ এপ্রিল ২০১৭ সাল পর্যন্ত। ৩১মে ২০১৬ সালে অধ্যক্ষ নিয়োগ পরীক্ষায় ১৩ জন আবেদন করেন । পরীক্ষায় অংশগ্রহন করেন ৮ জন। অংশ গ্রহনকারী মোঃ আবদুশ শাকুর পেয়েছেন ২৬ নাম্বার,মোঃ মোয়াজ্জেম হোসেন পেয়েছেন সাড়ে ২৫ নাম্বার,মোঃ জহিরুল আলম পেয়েছেন সাড়ে ২৫ নাম্বার, মোঃ ফারুক হোসাইন পেয়েছেন ২২ নাম্বার,মোঃ রুহুল আমিন পেয়েছেন ২২ নাম্বার,মোঃ জাফর আহমদ সিদ্দিকী পেয়েছেন ২০ নাম্বার,মাওলানা মোঃ শহিদুল ইসলাম পেয়েছেন ২৭ নাম্বার,মোঃ শহিদুল ইসলাম ১৭ নাম্বার পেয়েছেন।

এ পরীক্ষায় নিয়োগবোর্ড মাওলানা মোঃ শহিদুল ইসলামকে প্রথম এবং নির্বাচিত করেন।২ জুন ২০১৬ সালে মাওলানা মোঃ শহিদুল ইসলামকে নিয়োগ পত্র দেওয়া হয়। ৪ জুন ২০১৬ সালের শনিবার মাদ্রাসা সভাপতি কাছে যোগদান পত্র দাখিলের মাধ্যমে সে সুপারের দায়িত্ব পালন করেন। কিন্তু মাদ্রাসায় সুপার থাকা সত্ত্বেও পুনরায় পত্রিকায় নিয়োগ বিজ্ঞপ্তি ছাড়াই ২০ এপ্রিল ২০১৭ সালে মাওলানা মোঃ আবদুশ শাকুর এ মাদ্রাসায় সুপার হিসেবে যোগদান করেন। এতে অত্র প্রতিষ্ঠানের শিক্ষক, অভিবাবক ও ছাত্র- ছাত্রীদের মাঝে মিশ্র প্রতিক্রিয়া দেখা যায়। যোগদানের পরেই সুপার মাওলানা মোঃ আবদুশ শাকুর নিজস্ব বলয়ে শুরু করেন একেরপর এক ঘুষ বানিজ্য।

মাদ্রাসা সূত্রে জানা যায়,২৪ জানুয়ারি ২০১৯ তারিখ এনটিআরসির সুপারিশের মাধ্যমে মাদ্রাসার সহকারী মৌলভী গোলজার বেগমের কাছ থেকে মাদ্রাসা সুপার বিভিন্ন অজুহাতে ৩১ হাজার টাকা, এবং একই সময়ে সহকারী শিক্ষক শারীরিক শিক্ষা মোঃ ইউসুফ আলীর কাছ থেকে ৪১ হাজার টাকা, ৫ এপ্রিল ২০২১ তারিখে মাদ্রাসার ইবতেদায়ী প্রধান মোঃ আঃ রাজ্জাক বলেন,১১ তম গ্রেডে বেতনের জন্য অনলাইনে আবেদনের সময় আমার কাছ থেকে ৫ হাজার টাকা দাবি করেন মাদ্রাসার সুপার মহদয়। নগদ ৩ হাজার টাকা পেয়ে আরও ২ হাজার টাকার জন্য আমার প্রতি চাপপ্রয়োগ করেন, সহকারী শিক্ষক (কম্পিউটার)মোঃ শরিয়ত উল্লাহ থেকে প্রথমে ৫০ হাজার পরে আরও ১৫ হাজার টাকা নিয়েছেন,গ্রন্থাগারিক মোঃ মোজাম্মেল হকের কাছ থেকে বিভিন্ন অজুহাতে ১৬ হাজার টাকা,নিয়েছেন বলে ভুক্তভোগী শিক্ষক মহদয় প্রতিষ্ঠানের সভাপতির কাছে লিখিত অভিযোগ দিয়েছেন।

মাদ্রাসার অফিস সহকারী কাম-কম্পিউটার অপারেটর মোঃ ফেরদৌস বলেন, নিয়োগের সময় আমার কাছ থেকে মাদ্রাসার উন্নয়নের কথা বলে ৫ লক্ষ টাকা ও বেতনসীট করার জন্য আরও ১০ হাজার টাকা নিয়ে ও তারপর আরও ৫০ হাজার টাকা দাবি করেন অধ্যক্ষ মহদয়। ৫০ হাজার টাকা না দেওয়ার করনে বিভিন্ন সময় আমার সাথে খারাপ আচরন করেন তিনি।

সুলতানা রাজিয়া বলেন, আমার মেয়ে খুকুমনি ২০২১ সালের S.S.C পরীক্ষার্থী ছিল। প্রবেশ পত্রে নাম সংশোধনের কথা বলে ৯ হাজার টাকা নিয়েছেন কি ভাবে আমরা ছেলেমেয়েদের এ মাদ্রাসায় লেখা পড়া করাবো।

মাদ্রাসা সুপার মোঃ আবদুশ শাকুর বলেন, আমার বিরুদ্ধে যে নিয়োগ বানিজ্য ও দুর্নীতির অভিযোগ আনা হয়েছে তা মিথ্যা ও বানোয়াট।

মেহেন্দিগঞ্জ উপজেলা মাধ্যমিক শিক্ষা অফিসার তপন কুমার দাস সুপারের বিরুদ্ধে অভিযোগের সত্যতা নিশ্চিত করে বলেন, মাদ্রাসা সুপারের নিজের নিয়োগে অনিয়ম ও মাদ্রাসায় আর্থীক লেনদেনের বিষয়ে আমার কাছে অভিযোগ আছে। প্রথম তদন্ত ফলপ্রসু না হওয়ায় আবার পুনরায় তদন্ত করে আইনানুগ ব্যবস্থা করা হবে।

Leave a Reply

Your email address will not be published.

এ জাতীয় আরও খবর

ফেসবুকে আমরা