1. admin@dailyalokitoprovat.com : admin :
বৃহস্পতিবার, ৩০ জুন ২০২২, ১০:৪৭ অপরাহ্ন
সংবাদ শিরোনাম :
একজন তরুণ হাফেজের বেঁচে থাকার জন্য আর্থিক সাহায্যের আকুল আবেদন। ঝালকাঠিতে গ্রামীন ব্যাংকের ব্রাঞ্চ ম্যানেজার’র দূর্নীতির মামলায় ১০বছরের কারাদন্ড। তালতলী ইউপি নির্বাচনে স্বতন্ত্র প্রার্থীর বিজয়। কাহালুতে ক্ষুদ্র ও প্রান্তিক কৃষকদের মাঝে, বিনামূল্য সার বীজ বিতারন। জেলা প্রশাসনের উদ্যোগে সাহিত্য সম্মেলন ও সাংস্কৃতিক অনুষ্ঠানে লেখক হিসেবে সম্মাননা ক্রেস্ট পেল সাংবাদিক বাচ্চু। কেশবপুরের বাঁশবাড়িয়া বাজার পরিচালনা কমিটির নির্বাচন সম্পন্ন। নেত্রকোনার সুলতানকে দেখতে মানুষের ভিড়। জন্মনিবন্ধন সনদে অতিরিক্ত টাকা আদায়,সুবিদপুর উদ্যোক্তার সাথে স্থানীয় জনতার হাতাহাতি। কাহালুতে প্রাণী সম্পদ অফিসে খামারীদের মধ্যে গরু,ছাগল বিতরণ। প্রবাসী বাংলাদেশীদের সাথে নিয়ে ব্রাসিলিয়ায় পদ্মা সেতুর শুভ উদ্বোধন উদযাপন।

যৌতুকের দাবী করায় এক সেনা সদস্যের বিরুদ্ধে আদালতে মামলা।

দৈনিক আলোকিত প্রভাত
  • আপডেট সময় : শনিবার, ৪ সেপ্টেম্বর, ২০২১
  • ১৬৩ বার পঠিত

ইত্তিজা হাসান মনির, বরগুনা প্রতিনিধি।
বরগুনা সদর উপজেলার লাকুরতলা গ্রামে যৌতুকের দাবীতে এক সেনা সদস্যের বিরুদ্ধে মামলার খবর পাওয়া গিয়েছে।

২০১৫ সালে বরগুনা সদর উপজেলার লাকুরতলা গ্রামের অবসর প্রাপ্ত প্রধান শিক্ষক বীর মুক্তিযোদ্ধা মোঃ জালাল উদ্দিন এর দ্বিতীয় মেয়ে মোসাঃ জান্নাতুল আরফা জেপীর ইসলামী শরীয়াত মোতাবেক সদর উপজেলার ফুলঝুড়ি ইউনিয়নের গিলাতলী গ্রামের মোঃ শফিকুল ইসলাম শানুর ছেলে মোঃ শাহ জালালের বিবাহ হয়। শাহ জালাল ও জেপীর বিবাহের পর থেকেই বিভিন্ন ভাবে যৌতুকের দাবী করতে থাকেন বলে জানিয়েছেন জেপির বাবা জালাল আহমেদ মাষ্টার। জেপি ও শাহ জালালের একটি পুত্র সন্তান রযেছেন।

জেপির বাবা বলেন বিভিন্ন সময় আমার মেয়েকে যৌতুকের দাবীতে শারীরিক ভাবে মারধর করলেও মেয়ের সংসারের কথা বিবেচনা করে আমার জামাইর কর্মস্থল ঢাকার সেনাবাহীনর ক্যানন্টনমেন্টে ভাড়াকৃত বাসায় পাঠিয়ে দেই। শাহ জালাল সেনাবাহিনীর আর্মস ডিভিশনে ঢাকায় কর্মরত আছেন।

শাহ জালালের বিরুদ্ধে যৌতুকের জন্য স্ত্রীকে নির্যাতনের অভিযোগে বরগুনা নারী ও শিশু নির্যাতন দমন ট্রাইব্যুনালে মামলা দায়ের করা হয়েছে। ওই ট্রাইব্যুনালের বিচারক মো: হাফিজুর রহমান বৃহস্পতিবার মামলাটি গ্রহন করে বরগুনা পৌরসভার মেয়রকে সাত দিনের মধ্য তদন্ত করে প্রতিবেদন দাখিলের নির্দেশ দিয়েছেন। মামলার আসামীরা হল, ফুলঝুড়ি ইউনিয়নের গিলাতলী গ্রামের শফিকুল ইসলাম শানুর ছেলে শাহ জালাল। তার বাবা শফিকুল ইসলাম শানু ও মাতা হালিমা বেগম।

জান্নাতুল আরফা জেপি বলেন ৩০ শে আগস্ট সকাল ১০ঃ০০ টায় শাহ জালাল ও তার মা বাবা তাদের বসত ঘরে বসে দুই লাখ টাকা যৌতুক দাবী করে, আমি যৌতুক দিতে অস্বীকার করলে শাহ জালাল ও তার মা বাবা একত্রিত হয়ে আমাক মারধর করে।
যৌতুকের দাবী করে আমাকে ঘরের মধ্যে আটকে রাখে। আমি আমার বাবাকে ফোন করলে আমাকে উদ্ধার করে বরগুনা হাসপাতালে নিয়ে চিকিৎসা করায়। পরের দিন বরগুনা থানায় আমি মামলা করতে গেলে আদালতে মামলা করার পরামর্শ দেয়।

জেপি আরও বলেন, আমি যখন ঢাকা ছিলাম তখনও শাহ জালাল যৌতুকের দাবীতে আমাকে অমানসিক শারীরিক নির্যাতন করিত। আমার মাথায় চালের বস্তা তুলে দিয়ে হাটতে বলত। আমি হাটতে না পারলে আমাকে পিটিয়ে রক্তাক্ত করত। আমাকে খুন্তি দিয়ে ছ্যাকা দিত। শাহ জালালের অত্যাচারে আমার সমস্ত শরীর ক্ষতবিক্ষত। কাউকে দেখাতে পারছি না।

বরগুনা থানার অফিসার ইনচার্জ কেএম তারিকুল ইসলাম বলেন, এ ব্যাপারে বরগুনা থানায় কেহ মামলা করতে আসেনি। মামলা করতে আসলে মামলা আমলে নিতাম।

Leave a Reply

Your email address will not be published.

এ জাতীয় আরও খবর

ফেসবুকে আমরা