1. admin@dailyalokitoprovat.com : admin :
শুক্রবার, ২৭ মে ২০২২, ১২:৩৯ পূর্বাহ্ন
সংবাদ শিরোনাম :
সয়াবিনের বাম্পার ফলন হওয়ার পরেও, কৃষকের মাথায় হাত। তালতলীতে নৌকা মার্কার প্রার্থী সংবাদ সম্মেলন। একটি দৃষ্টি নন্দন সৌন্দর্যময় বিনোদন কেন্দ্র, কল্পনা পিকনিক স্পট। ঝালকাঠি জেলা কৃষকদলের কমিটি গঠন। নেত্রকোণায় সরকারি জীবন বীমা কর্পোরেশনের মতবিনিময় সভা অনুষ্ঠিত। কেশবপুরের মঙ্গলকোটে জাতীয় কবি কাজী নজরুল ইসলাম-এর ১২৩ তম জন্মজয়ন্তী উদযাপন। কেশবপুরে আনসার ও গ্রাম প্রতিরক্ষা বাহিনীর সমাবেশ। জাতীয় ভিটামিন ‘এ’ প্লাস ক্যাম্পেইন ২০২২ উপলক্ষে ঝালকাঠিতে সাংবাদিকদের ওরিয়েন্টেশন কর্মশালা অনুষ্ঠিত। মানবেতর জীবন যাপন করছেন ঠাকুরগাঁওয়ের একতা বুদ্ধি প্রতিবন্ধী স্কুল ও পুনর্বাসন কেন্দ্রের শিক্ষক কর্মচারীরা। বগুড়ায় র‌্যাবের অভিযানে কাহালুতে নকল স্বর্ণের মূর্তিসহ আটক ২।

শীঘ্রই খুলে দেওয়া হচ্ছে বরিশালের লেবুখালী সেতু

দৈনিক আলোকিত প্রভাত
  • আপডেট সময় : বৃহস্পতিবার, ৫ আগস্ট, ২০২১
  • ১২৭ বার পঠিত

নিজস্ব প্রতিবেদক :: আগামী মাসের (সেপ্টেম্বর) যেকোনও দিন প্রধানমন্ত্রীর উদ্বোধনের পর গাড়ি চলাচলের জন্য খুলে দেওয়া হবে বরিশাল-পটুয়াখালী-কুয়াকাটা মহাসড়কের লেবুখালী সেতু। প্রায় দেড় কিলোমিটার (এক হাজার ৪৭০ মিটার) দৈর্ঘ্যের এই সেতুর মাত্র দুই-তিন শতাংশ কাজ বাকি রয়েছে। দেশে দ্বিতীয়বারের মতো নির্মিত হচ্ছে ‘এক্সট্রা ডোজ প্রি-স্ট্রেসড বক্স গার্ডার’ টাইপের এ সেতুটি। এটি নির্মাণে ব্যয় হয়েছে এক হাজার ৪৪৭ কোটি ২৪ লাখ টাকা।

সেতুর প্রকল্প পরিচালক আবদুল হালিম সাংবাদিকদের বলেন, ‘কর্নফুলী দ্বিতীয় সেতুর আদলেই নির্মাণ করা হয়েছে ফোর লেন লেবুখালী সেতু। পায়রা নদীর মূল অংশে ৬৩০ মিটার বক্স গার্ডার চারটি স্প্যানের ওপর এটি নির্মিত হয়েছে। পায়রা সমুদ্র বন্দরে উপকূলীয় পণ্য ও জ্বালানিবাহী নৌযান চলাচলের জন্য মূল অংশে ২০০ মিটার করে দুটি স্প্যান ১৮.৩০ মিটার ভার্টিক্যাল ক্লিয়ারেন্স রাখা হয়েছে। নদীর তলদেশে বসানো হয়েছে ১৩০ মিটার দীর্ঘ পাইল। যা দেশে সর্ববৃহৎ।

এছাড়া সেতুর মূল অংশের দুই প্রান্তে ৮৪০ মিটার ভায়াডাক্টে ৩০ মিটার করে ২৮টি স্প্যান বর্ধিত অংশের ভার বহন করছে। লেবুখালী সেতুর ৩২টি স্প্যান এখন দাঁড়িয়ে আছে ৩১টি পিয়ারের ওপর। সেতুটির ২৮টি স্প্যানের ১২টি বরিশাল প্রান্তে এবং ১৬টি পটুয়াখালী প্রান্তে।’

তিনি আরও বলেন, ‘মূল সেতুটি বিভিন্ন মাপের ৫৫টি টেস্ট পাইলসহ দশটি পিয়ার, পাইল ও পিয়ার ক্যাপের ওপর নির্মিত হয়েছে। এছাড়া ১৬৭টি বক্স গার্ডার সেগমেন্ট রয়েছে সেতুতে। যার ফলে দূর থেকে সেতুটিকে মনে হবে ঝুলে আছে। এছাড়া জোয়ারের সময় নদী থেকে সেতুটি ১৮.৩০ মিটার উঁচু থাকবে। এতে নদীতে বড় বড় জাহাজ চলাচলে কোনও সমস্যা হবে না।’

উপ-প্রকল্প পরিচালক আশিষ মুখার্জী সাংবাদিকদের বলেন, ‘সেতুর দুই থেকে তিন ভাগ কাজ বাকি রয়েছে। লাইটিং ও টোলঘরের কাজ চলছে। বিটুমিনের কিছু কাজ বাকি রয়েছে বৃষ্টির কারণে। ১০ দিন ধরে বৃষ্টিতে কিছুটা সমস্যা হয়েছে। তবে রোদ উঠলে যেটুকু কাজ বাকি রয়েছে তা শেষ হয়ে যাবে। আগামী মাসের যেকোনও সময় প্রধানমন্ত্রীর উদ্বোধনের মধ্য দিয়ে সেতুতে যানবাহন চলাচল শুরু হবে।’

নির্মাণকাজের গুণগত মান প্রসঙ্গে প্রধান প্রকৌশলী আব্দুস সবুর সাংবাদিকদের বলেন, ‘গুণগতমান রক্ষার্থে কনসালটেন্ট ও ঠিকাদারসহ সব পর্যায়ের কর্মকর্তারা সজাগ রয়েছেন। এখানে নিম্নমানের কাজের কোনও সুযোগ ছিল না।’

লেবুখালীর পায়রা নদীর ওপর এই সেতু নির্মাণের কাজ শুরু হয় ২০১৬ সালের ২৪ জুলাই। কার্যাদেশে সেতু নির্মাণে ৩৩ মাস সময় বেঁধে দেওয়া হলেও দুই দফায় প্রকল্পের মেয়াদ বাড়ানো হয়েছে ২০২২ সালের ৩০ জুন পর্যন্ত। তবে তার আগেই সেপ্টেম্বরের মাঝামাঝি সময়ে সেতুটি খুলে দেওয়া হচ্ছে।’

Leave a Reply

Your email address will not be published.

এ জাতীয় আরও খবর

ফেসবুকে আমরা