1. admin@dailyalokitoprovat.com : admin :
রবিবার, ২৯ মে ২০২২, ০৬:০০ পূর্বাহ্ন
সংবাদ শিরোনাম :
জাতীয় সাংবাদিক সংস্থা রাজশাহী বিভাগ’র নবনির্বাচিত কমিটির সাধারণ সভা অনুষ্ঠিত। রাজশাহীর বাঘায় আলোচিত পাঁচ টাকার হোটেল মালিক আর নেই। নলছিটিতে মাদ্রাসা ছাত্রী অপহরণের এক মাসেও উদ্ধার হয়নি, উল্টো দু’টি মামলা। মান্দার এক রুখী উচ্চ বিদ্যালয়ে নবীন বরণ অনুষ্ঠান অনুষ্ঠিত। বরগুনায় গণহত্যা দিবস ২৯ ও ৩০শে মে। নেত্রকোনায় জঙ্গি সংগঠনের নারী সদস্য আটক। কলাপাড়ায় অরজগতা রুখতে শক্ত অবস্থানে কলেজ ছাত্রলীগ। সমুদ্রের তীরে নিখোঁজ পর্যটক ফিরোজ কে খুঁজছেন শাশুড়ি, ২৪ঘন্টা মেলেনি সন্ধান। আটপাড়ায় বাংলাদেশ-ভারত সম্প্রীতি পরিষদের সম্মেলন অনুষ্ঠিত। কেশবপুরের মঙ্গলকোটে রংধনু আর্ট একাডেমির শুভ উদ্বোধন।

হিজলায় প্রশাসনের চোখ ফাঁকি দিয়ে অনলাইন জুয়ার ব্যবসা করে যাচ্ছেন সোলাইমান।

দৈনিক আলোকিত প্রভাত
  • আপডেট সময় : শনিবার, ৭ মে, ২০২২
  • ৪৮ বার পঠিত

নিজস্ব প্রতিবেদক।
করোনা মহামারিতে বিশ্বজুড়ে ক্লাব ও ক্যাসিনো বন্ধ করে দেয়ায় জমে উঠেছে অনলাইন জুয়ার আসর। জুয়াড়িদের অনলাইনে আকর্ষণ করতে নতুন নতুন ফন্দি কাজে লাগাচ্ছে অনেক অনলাইন বেটিং সাইটগুলো।

বরিশালের হিজলা মেহেন্দীগঞ্জে মোবাইল হ্যান্ডসেটসহ বিভিন্ন ইলেক্ট্রনিক ডিভাইস ব্যবহারের মাধ্যমে অনলাইন জুয়া (বেটিং) পরিচালনা করে হাতিয়ে নিচ্ছে লক্ষ লক্ষ টাকা জুয়ার এজেন্টরা। এজেন্টদের রয়েছে শত শত সদস্য। গ্রাহকের অবৈধ পথের অর্জিত টাকা কিছু পায় এজেন্ট আর বাকী টাকা চলে যায় বিভিন্ন মাধ্যমে অন্যদেশে যা দেশ ও জাতির জন্য হুমকি স্বরূপ।

জানা যায়,উপজেলার অনলাইন জুয়া (বেটিং) সাইট রয়েছে তাদের মুল নিয়ন্তন করে মুলাদী উপজেলার আনলাইন জুয়ার মাস্টার এজেন্ট নাদিম (আশরাফ) নামের এক যুবক। নাদিম (আশরাফ) এর বিভিন্ন জেলা উপজেলায় রয়েছে এজেন্ট এবং তার ও রয়েছে শতশত সদস্য।

সোলাইমান জানান,আমরা আগে নাদিম (আশরাফ) এর কাছ থেকে একাউন্ট খুলে খেলতাম,তার মাধ্যমেই টাকা বিকাশে বা নগদে লেনদেন করতাম। যখন আমাদের এলাকায় অনেক লোকেই জরিত তখন নাদিম (আশরাফ) এর কাছ থেকে টাকা দিয়ে একটা এজেন্ট নিয়েছিলাম। আমাদের প্রতি পয়েন্ট ৯০-৯২ টাকা করে ক্রয় করতে হয় এবং সদস্যদের কাছে বিক্রয় ১০০ টাকা করে।

সোলাইমান হিজলা উপজেলা সংলগ্ন কাজিরহাট থানার আন্দারমানিক ইউনিয়নের বাসিন্দা,পেশায় রাজমিস্তি ছিলেন, হঠাৎ করে চলে যান অতি লোভে অবৈধ জগতে ।

অনলাইন জুয়ার এজেন্ট সোলাইমান হিজলা মেহেন্দীগঞ্জ ঘুরে ঘুরে বিভিন্ন স্থানে সুযোগ-সুবিধা মত ধরিয়ে দিচ্ছে যুবকদের হাতে অনলাইন বেটিং সাইট। অনলাইন খেলার কোনো সীমারেখা নেই। ক্রেডিট কার্ড,বিকাশ,রকেট, নগদসহ বিভিন্ন মাধ্যম খেলা যায়,এতে বিপুল অংকের বাজি ধরা যায় তাই আকর্ষণ করে খেলে বেশি মনুষ। যদিও লাভের চেয়ে লোকশান বেশি,তারপরও খেলে,অনলাইনে বাজির কোনো সীমা না থাকায় বিপুল সংখ্যক মানুষ সব খুইয়ে নিঃস্ব হয়ে যায়,অভাবের তারনায় এলাকা ছাড়া হচ্ছে অনেক যুবকরা।

Leave a Reply

Your email address will not be published.

এ জাতীয় আরও খবর

ফেসবুকে আমরা